রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
24 hour essay writing service
Uncategorized
অপরাধ
অর্থনীতি
আদালত
আন্তর্জাতিক
আবহাওয়া
ইসলাম
কলাম
ক্যাম্পাস
ক্রিকেট
খেলাধুলা
চাকুরির খবর
ছবি
জাতীয়
জীবন ব্যবস্থা
তথ্যপ্রযুক্তি
ধর্ম
নির্বাচিত খবর
পরামর্শ
পুঁজিবাজার
প্রবাস
ফিচার
ফুটবল
ফেসবুক কর্নার
বিনোদন
বিবিধ
ভিডিও
ভোটের হাওয়া
মতামত
রাজধানী
রাজনীতি
রিপোর্টার পরিচিতি
শিক্ষা
শিরোনাম
শিল্প ও সাহিত্য
শীর্ষ খবর
সকল বিভাগ
সবখবর
সম্পাদকীয়
সর্বশেষ
সংস্কৃতি
সাক্ষাৎকার
সারাদেশ
সিটি কর্পোরেশন
স্বাস্থ্য কথা
শিরোনাম

ঈদে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় চলবে ২০টি ফেরি ও ২২টি লঞ্চ

ঈদে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় চলবে ২০টি ফেরি ও ২২টি লঞ্চ

ঘাট সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল ফিতরে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে সাধারণ মানুষের যাতে নির্বিঘ্নে যাতায়াত করতে পারে এবং যানজট নিরসনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ট্রাফিক পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য ঘাট এলাকায় থাকবে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সেই সঙ্গে ঘাট এলাকার সড়কে ঈদের আগেই বৈদ্যুতিক লাইট স্থাপন এবং লঞ্চ ও ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়ক সংস্কার করা হবে।

ঈদ উপলক্ষে সম্প্রতি প্রশাসন ও মালিক-শ্রমিকদের সভায় জানানো হয়েছে, ঈদের সময় সড়কে বাস ও থ্রি হুইলারসহ অন্যান্য যানবাহন শৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে চলাচল করা, যাত্রীদের থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় না করা ও কাউন্টারে ভাড়ার চার্ট টানিয়ে দেওয়া, চলন্ত ফেরিতে জুয়ার আসর বন্ধ করা, ঘাট এলাকায় দালাল ও ছিনতাইকারী চক্রকে শনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে সড়কে এলোমেলোভাবে গাড়ি না রাখতে চালক ও শ্রমিকদের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. সফিকুল ইসলাম জানান, ‘যদি কোনও প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হয় তাহলে আমরা ২০টি ফেরি দিয়ে সাধারণ মানুষ ও যানবাহন পারাপার করতে সক্ষম হবো।’

বিআইডব্লিইটিএ এর সহকারী ব্যাবস্থাপক ফরিদুল ইসলাম জানান, ‘৩৪টি লঞ্চ আছে আরিচা টু পাটুরিয়া ও আরিচা টু কাজীরহাট এই দুইটা নৌপথে। এর মধ্যে ২২টা লঞ্চ চলাচল করবে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ পথে এবং ১২টা লঞ্চ চলাচল করবে আরিচা-কাজীরহাট নৌ পথে।’

রাজবাড়ী সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আশিকুল ইসলাম জানান, ‘রাজবাড়ী সড়ক বিভাগের আওতাধীন রাজবাড়ী কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে যে উন্নয়ন কাজ চলছে তা অতিদ্রুত সম্পন্ন করতে ঠিকাদারকে কঠোরভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ঠিকাদার তার কাজ চলমান রেখেছে। ঈদে ঘরমুখো মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে যাতায়াত করতে পারে তার জন্য ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কোনও প্রকার সমস্যা থাকবে না আশা করছি। নিয়মিত ঠিকাদারের কাজ নজরদারি করা হচ্ছে।’

রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি জানান, ‘রাস্তাঘাট যদি সময়মতো মেরামত শেষ হয় এবং যদি প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হয় তাহলে অবশ্যই ঈদযাত্রা সুন্দরভাবে ও নির্বিঘ্নে শেষ হবে। ঘাট এলাকায় যাত্রী হয়রানী ও চাঁদাবাজি বন্ধে সাদা পোশাকে পুলিশের পাশাপাশি তিনস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’সূত্র- বাংলা ট্রিবিউন

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

shares