বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
24 hour essay writing service
Uncategorized
অপরাধ
অর্থনীতি
আদালত
আন্তর্জাতিক
আবহাওয়া
ইসলাম
কলাম
ক্যাম্পাস
ক্রিকেট
খেলাধুলা
চাকুরির খবর
ছবি
জাতীয়
জীবন ব্যবস্থা
তথ্যপ্রযুক্তি
ধর্ম
নির্বাচিত খবর
পরামর্শ
পুঁজিবাজার
প্রবাস
ফিচার
ফুটবল
ফেসবুক কর্নার
বিনোদন
বিবিধ
ভিডিও
ভোটের হাওয়া
মতামত
রাজধানী
রাজনীতি
রিপোর্টার পরিচিতি
শিক্ষা
শিরোনাম
শিল্প ও সাহিত্য
শীর্ষ খবর
সকল বিভাগ
সবখবর
সম্পাদকীয়
সর্বশেষ
সংস্কৃতি
সাক্ষাৎকার
সারাদেশ
সিটি কর্পোরেশন
স্বাস্থ্য কথা
শিরোনাম

পৃথিবী বিখ্যাত শতবর্ষীরা খেতেন যে খাবার

পৃথিবী বিখ্যাত শতবর্ষীরা খেতেন যে খাবার

সুন্দর এই পৃথিবীতে বেশিদিন বেঁচে থাকার চেষ্টা মানুষের নিরন্তর। শতবর্ষ আয়ু চেয়ে প্রার্থনাও করে মানুষ একজন আরেকজনকে। কিন্তু বর্তমান সময়ে এই কাজট বেশ কঠিনই বলা যায়। একে খাবারে ভেজাল তাঁর ওপর জীবন যাত্রার  মান অনেক নিচে নেমে গেছে আগের চেয়ে। যদিও কয়েকটি দেশে বেড়েছে মানুষের গড় আয়ু। বিশ্বের যারা দীর্ঘায়ু মানুষ আছেন তারা কোন ধরনের খাদ্যাভ্যাসের জন্য এতদিন বেঁচে ছিলেন এটা নিয়ে বেশকিছু গবেষণাও পরিচালিত হয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক পৃথিবীর আলোচিত কিছু শতবর্ষী মানুষের খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে।

এমা মোরানো :

এমা মোরানো ছিলেন ইতালির বাসিন্দা। ২০১৭ সালে যখন তিনি মারা যান তাঁর বয়স ছিল ১১৭ বছর। এত দীর্ঘ সময় বেঁচে থাকার পেছনে কী কারণ ছিল এমনটি জানতে চাওয়া হয়েছিল তাঁর কাছে। তিনি জানিয়েছিলেন , একটি নিয়মিত খাদ্যাভ্যাস ছিল তাঁর। যার ব্যতিক্রম করতেন না কখনো। প্রত্যেকদিন সকালে গোটা তিনেক ডিম খেতেন তিনি। এরমধ্যে দুটি ডিম থাকতো কাঁচা। যা খেতেন কিমা করা মাংসের সাথে।

সুসানা মুশাত জোন্স :

আমেরিকান এই নারী মারা গিয়েছিলেন ২০১৬ সালে। মৃত্যুর সময় তারও বয়স হয়েছিল ১১৭ বছর। তাঁর কাছেও জানতে চাওয়া হয়েছিল কী অভ্যাসের জন্য এত বছর বেঁচে থাকতে পারছেন। তিনি বলেছিলেন, সকালের নাস্তাকে গুরুত্ব দিতে হবে। ঘুম ভাঙার পরই চার টুকরো বেকন এবং ডিম খেয়ে দিন শুরু করতেন তিনি। আর এই অভ্যাসটিই তাকে এত বছর অবধি বেঁচে থাকতে সাহয্য করেছে।

মিসাও ওকায়া :

জাপানি এই নাগরিক বেঁচে ছিলেন ২০১৫ সাল নাগাদ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ছিল ১১৭ বছর। একটা সময় অবধি তিনি ছিলেন এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ। তিনি একটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন, ভিনেগার দেওয়া ভাত, সবজি, ফল এবং সামুদ্রিক মাছ খেতেন প্রতিদিন। এরসাথে আটঘণ্টা ঘুম ছিল বাঁধা। আর এই অভ্যাসটিই তাকে এত দীর্ঘ সময় বাঁচিয়ে রেখেছিল বলে মনে করতেন তিনি।

ধর্মপাল সিং গুহ :

আমাদের পাশের দেশ ভারতের এই মানুষটি মারা যাওয়ার সময় বয়স হয়েছিল ১১৯ বছর। ব্যক্তিজীবনে তিনি একজন ক্রীড়াবিদ ছিলেন। তবে খাবার গ্রহণের ব্যাপারে তিনি খুবই সচেতন ছিলেন। ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার এবং চিনি তিনি সবসময় এড়িয়ে চলতেন। সেই সাথে ক্যাফেইনকেও তিনি অপছন্দ করতেন। তাঁর খাদ্য তালিকায় ছিল গরুর দুধ, চাটনি এবং তাজা ফল।

ভায়োলেট ব্রাউন :

বর্তমান পৃথিবীর সবচেয়ে প্রবীণ মানুষটির নাম হচ্ছে ভায়োলেট ব্রাউন। তাঁর বয়স ১১৭ বছরের কিছু বেশি। তিনি তাঁর খাদ্য তালিকায় এখনো প্রচুর পরিমাণে তাজা মাছ, খাসির মাংস, মিষ্টি আলু এবং নানা তাজা ফল রাখেন।

সূত্র : এনডিটিভি

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

shares