বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
24 hour essay writing service
Uncategorized
অপরাধ
অর্থনীতি
আদালত
আন্তর্জাতিক
আবহাওয়া
ইসলাম
কলাম
ক্যাম্পাস
ক্রিকেট
খেলাধুলা
চাকুরির খবর
ছবি
জাতীয়
জীবন ব্যবস্থা
তথ্যপ্রযুক্তি
ধর্ম
নির্বাচিত খবর
পরামর্শ
পুঁজিবাজার
প্রবাস
ফিচার
ফুটবল
ফেসবুক কর্নার
বিনোদন
বিবিধ
ভিডিও
ভোটের হাওয়া
মতামত
রাজধানী
রাজনীতি
রিপোর্টার পরিচিতি
শিক্ষা
শিরোনাম
শিল্প ও সাহিত্য
শীর্ষ খবর
সকল বিভাগ
সবখবর
সম্পাদকীয়
সর্বশেষ
সংস্কৃতি
সাক্ষাৎকার
সারাদেশ
সিটি কর্পোরেশন
স্বাস্থ্য কথা
শিরোনাম

উহানের রাস্তায় পড়ে আছে মরদেহ, কাছে গেল না কেউ!

উহানের রাস্তায় পড়ে আছে মরদেহ, কাছে গেল না কেউ!

চীনের উহান শহরের গ্রাউন্ড জিরোতে মুখে মাস্ক ও হাতে প্লাস্টিকের ব্যাগ নিয়ে ফুটপাতে এক বৃদ্ধের নিথর দেহ পড়ে আছে। এক কোটি ১০ লাখ মানুষের শহর উহানে অন্য সময় হলে হয়তো এমন দৃশ্য দেখে মুহূর্তেই অনেক মানুষ তাকে উদ্ধার করতে আসতো। কিন্তু এখন ভয়ে কেউই তার কাছে যাচ্ছে না।

এই বিষয়ে আজ শুক্রবার ছবিসহ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল উহান শহরের বাসিন্দাদের এমন নিষ্ঠুর আচরণের কারণ এই শহরেই ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব সবথেকে বেশি।

এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শহরটি অবরুদ্ধ হয়ে আছে কয়েক সপ্তাহ ধরে। ফলে ফুটপাতে পথচারীর সংখ্যা হাতেগোনা। আবার যারা পাশ দিয়ে যাচ্ছেন কেউ ভয়েও কাছে যাচ্ছেন না। উহান শহরের পরিস্থিতি যে কতটা ভয়াবহ এই ছবি তারই প্রমাণ।

প্রত্যক্ষদর্শী একজন এএফপি’র সাংবাদিককে জানান,একটি জরুরি পরিসেবার গাড়ি আসার আগ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহটি এভাবেই পড়েছিল। পরে সুরক্ষামূলক জামা পরিহিত চিকিৎসাকর্মীরা মরদেহটি গাড়িতে তুলে নেয়।

এএফপির ছবিতে দেখা যায়, একটি বন্ধ ফার্নিচার দোকানের সামনের ফুটপাতে চিৎ হয়ে পড়েছিল মরদেহটি। চিকিৎসাসেবার বিশেষ জামা পরিহিত হাসপাতালকর্মীরা একটি নীল কম্বল জড়িয়ে আলতো করে মরদেহটি গাড়িতে তুলে নেয়।

প্রসঙ্গত,গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরে তা চীনের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের ১৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ভাইরাসে ২১৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন ও এতে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১০ হাজার মানুষ।

এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণগুলো হলো- জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্ট।

শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

shares