ফয়সাল আহমেদ সেতু। তিনি কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক বিশ্বাসের ছোট ছেলে। সেতু বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের জাহাজ এমভি ‘বাংলার সমৃদ্ধি’তে ডেক ক্যাডেট হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। বর্তমানে ইউক্রেনের অলিভিয়া সৈকতে অবস্থান করছেন।

এ জাহাজটিতে ২৯ সদস্য নিয়ে ইউক্রেনের অলিভিয়া সৈকতে আটকে পড়েছে। এরই মধ্যে এ জাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনায় ঘটে। এ হামলায় গোলাবারুদের আঘাতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এখনো সমুদ্রতীরে জাহাজ নোঙর করে ২৮ জন আটকে আছেন।

জাহাজটির ডেক ক্যাডেট হিসেবে কর্মরত থাকা ফয়সাল আহমেদ সেতুর পরিবার এমন তথ্য জানিয়েছেন। সমুদ্রে চলমান অবস্থায় ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ শুরু হলে মাইনের আতঙ্কে আটকে পড়ে জাহাজটি।

বুধবার (২ মার্চ) বাংলাদেশ সময় রাত ৯টার দিকে জাহাজটিতে বোমা হামলা হয়। এতে নিহত হন ওই জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর রহমান।

ফয়সাল আহমেদ সেতু বৃহস্পতিবার দুপুরে তার পরিবারকে জানান, এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে তাদের কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি। এদিকে জাহাজটিতে যে পরিমাণ খাবার মজুত আছে, তা অল্প কয়েক দিনের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে।

সেতুর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার মা টলি খাতুন বলেন, যত দ্রুত সম্ভব আমার ছেলেসহ সবাইকে নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনা হোক।

সূত্র-বাংলাদেশ জার্নাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x