ডেনমার্কের বৃহত্তম জ্বালানি সংস্থা বলেছে, রাশিয়া বুধবার থেকে তাদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে। রুশ মুদ্রা রুবলের মাধ্যমে গ্যাসের মূল্য পরিশোধ করতে অস্বীকার করায় তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বুধবার এবিসি নিউজ এ খবর জানায়।

রাশিয়া এর আগে রুবলে গ্যাসের মূল্য পরিশোধের দাবি প্রত্যাখ্যান করার জন্য ফিনল্যান্ড, পোল্যান্ড এবং বুলগেরিয়ায় প্রাকৃতিক গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে। মঙ্গলবার তারা নেদারল্যান্ডসে সরবরাহ বন্ধ করে দেয়।

ডেনমার্কের জ্বালানি কোম্পানি ওর্স্টেড বলছে, এটি এখনও তার গ্রাহকদের পরিষেবা দিতে সক্ষম হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ওর্স্টেড-এর সিইও ম্যাডস নিপার বলেন, ‘আমরা রুবলে অর্থ প্রদানের অস্বীকৃতিতে দৃঢ় রয়েছি এবং আমরা এ দৃশ্যের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

ইউক্রেন আগ্রাসনের জন্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার প্রতিক্রিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন একটি ডিক্রিতে স্বাক্ষর করেন যে, অবন্ধু দেশের ক্রেতাদের ১ এপ্রিল থেকে রাশিয়ার গ্যাসের জন্য রুবলে অর্থ প্রদান করতে হবে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। দেশটির রাজধানী কিয়েভসহ বিভিন্ন শহরে গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী।

যুদ্ধে দুই পক্ষেরই ব্যাপক প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে। জাতিসংঘ বলছে, যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যে ইউক্রেন ছেড়ে অন্য দেশে আশ্রয় নিয়েছেন ৫০ লাখেরও বেশি মানুষ। আর অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ৮০ লাখের বেশি লোক।

সূত্র জানায়, রাশিয়ার সীমান্তবর্তী ইউক্রেনের শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ সামরিক বাহিনী; হামলা চলছে ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভেও।

রাশিয়ার গোলা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় খারকিভ শহরেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির খবর পাওয়া যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x