অবৈধভাবে কোটি কোটি টাকা অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের নজরদারিতে রয়েছেন চাঁদপুরের ‘বালুখেকো’ চেয়ারম্যান সেলিম খান এবং তার ছেলে শান্ত খান। এবার অভিযোগ সেলিম খানের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার বিরুদ্ধে।

নবীন অভিনেত্রী নিশাত নাওয়ার সালওয়া ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানিয়েছেন, শাপলা মিডিয়া তার পারিশ্রমিক নিয়ে নয়ছয় করছে। এই প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে নির্মিত ‘বুবুজান’ নামের একটি সিনেমায় দুই লাখ টাকা পারিশ্রমিকের চুক্তিতে কাজ করেছেন সালওয়া।

জানা গেছে, চুক্তি অনুযায়ী সিনেমার শুটিংয়ের শুরুতে অর্ধেক এবং শুটিং ও ডাবিং সম্পূর্ণ হওয়ার পর বাকি অর্ধেক পারিশ্রমিক শোধ করার জন্য সালওয়াকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় শাপলা মিডিয়া থেকে থেকে।

প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী শুটিংয়ের শুরুতে এক লাখ টাকা পরিশোধ করলেও শুটিং ও ডাবিং সম্পূর্ণ হওয়ার ছয় মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো বাকি পারিশ্রমিক পরিশোধ করা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে শাপলা মিডিয়া এবং সিনেমার পরিচালকের ওপর ক্ষোভ ঝেড়েছেন অভিনেত্রী।

শনিবার দুপুরে ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে সালওয়া লিখেছেন, ‘কোনো প্রযোজনা সংস্থার কারও ব্যক্তিগত সমস্যার দায়ভার কি আর্টিস্ট এর!!! পরিচালক শামিম আহমেদ রনি পরিচালিত ‘বুবুজান’ ফিল্মের শুটিং ও ডাবিং শেষ হওয়ার দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও শাপলা মিডিয়া সংশ্লিষ্ট কেউ আর্টিস্টের পেমেন্ট ক্লিয়ার করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন না। আমি যোগাযোগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি। অথচ তাদের অন্যান্য সকল কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে ! এ ধরনের অপেশাদার আচরণ কখনোই কাম্য নয়।’

 

যোগাযোগ করা হলে ঢাকা টাইমসকে সালওয়া বলেন, ‘সিনেমাটির শুটিং অনেক আগেই শেষ হয়েছে। এরপর গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখে ডাবিং করার মধ্য দিয়ে এই সিনেমার যাবতীয় কাজ শেষ করে দিয়েছি আমি। ৬ মাস হয়ে গেলেও আমি এখনও আমার পারিশ্রমিক বুঝে পাইনি। যেটা আমার জন্য রীতিমত অপমানজনক।’

অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘আমি বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করার পর অনেকে আমার সাথে কথা বলেছে। অনেকেই তাদের পারিশ্রমিক নিয়ে নয়ছয় করার বিষয়টি জানিয়েছেন।’

এ ব্যাপারে সিনেমার পরিচালক শামীম আহমেদ রনির সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি অভিযোগটি স্বীকার করেন। বলেন, ‘প্রযোজনা সংস্থা এখন একটু সমস্যায় আছে। তাই হিরোইনের সম্মানীর টাকা দিতে সময় লাগছে। আমাদের চিন্তা তো এমন নয় যে টাকা মেরে দেব। চলচ্চিত্রে অনেক ক্ষেত্রে ছবি মুক্তির আগেও কিন্তু টাকা দেওয়ার রেওয়াজ আছে। আমরাও তাই ভেবেছি। তবে আশা করছি, নভেম্বরের মধ্যে সালওয়া বাকি টাকা পেয়ে যাবে।’

গত বছরের মার্চে শুরু হয় ‘বুবুজান’ সিনেমাটির শুটিং। শেষ হয় চলতি বছরের ২৬ জানুয়ারি। এতে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়ার কর্ণধার বিতর্কিত চেয়ারম্যান সেলিম খানের ছেলে শান্ত খান নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন সালওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x