ভারতের কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনের কার্যালয়ের সামনে এক পুলিশকর্মীর এলোপাথাড়ি গুলিতে দুইজন নিহত হয়েছেন। ওই পুলিশকর্মীর গুলিতে প্রথমে এক নারী গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন। পরে ওই পুলিশ নিজেও গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের আউট পোস্টে কর্মরত নিরাপত্তারক্ষী এলোপাথাড়ি গুলি চালায় বলে জানিয়েছে কলকাতা পুলিশ। ভরদুপুরে কলকাতার রাজপথে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় এক নারীর। পরে নিজেকেও গুলি চালিয়ে শেষ করে দেন ওই নিরাপত্তারক্ষী। আরও অনেকেরই গুলি লেগেছে বলে দাবি প্রত্যক্ষদর্শীদের। ওই নিরাপত্তারক্ষীর গলায় ক্ষত রয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবারই ওই নিরাপত্তাকর্মী বাংলাদেশ ডেপুটি হাই কমিশনের আউট পোস্টে কাজে এসেছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ওই পুলিশ মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করেন। ১০ থেকে ১৫ রাউন্ড গুলি চালান তিনি। তারপর গলার কাছে গুলি করে নিজেকেও শেষ করেন। ওই পুলিশের ছোড়া গুলি গিয়ে লাগে এক নারীর গায়ে। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়দের দাবি, গুলি গিয়ে লাগে এক বাইক চালকের পিঠে। বাইকের পেছনে থাকা এক নারীরও গুলি লাগে। তিনি ঘটনাস্থলে নিহত হন। স্থানীয় সূত্রে দাবি, ওই নারী কোনও অ্যাপের মাধ্যমে বাইকটি বুক করেছিলেন। এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়ির গায়েও বেশ কয়েকটি গুলির চিহ্ন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x