মোঃ মমিন হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার :

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোজহারুল ইসলাম তালুকদার (ঠান্ডু) সভাপতি ও আনোয়ার হোসেন মোল্লা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছে। নবনির্বাচিত সভাপতি এই নিয়ে টানা পঞ্চম বারের মত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হলেন। তার আগে তিনি দীর্ঘদিন স্ধাারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

বুধবার (১৫ জুন) বিকালে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কালিহাতী আর এস সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি। সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করে বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক ফজলুর রহমান খান ফারুক।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদারের সভাপতিত্বে প্রথম অধিবেশনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এডভোকেট মোঃ কামরুল ইসলাম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, সদস্য এডভোকেট এ.বি.এম রিয়াজুল কবির কাওছার।

এছাড়াও প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি) এমপি।

আরো বক্তব্য রাখবেন কালিহাতী আসনের সংসদ সদস্য হাছান ইমাম খান সোহেল হাজারী এমপি, গোপালপুর-ভূঞাপুর আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনির এমপি।

 

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এমএ মালেক ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আনিসুর রহমান, শামসুল হক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আশরাফুজ্জামান স্মৃতি, সাংগঠনিক সম্পাদক জামিলুর রহমান মিরন, সুভাষ চন্দ্র সাহা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ তারেক মাহমুদ পলু প্রমুখ।

প্রধান অতিথির ভাষণে ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, তৃণমূলই আওয়ামীলীগের মূল ভিত্তি, তৃণমূলই আওয়ামীলীগের প্রাণ। গত চৌদ্দ বছরে দেশে একটি লোকও খাদ্যের অভাবে না খেয়ে মারা যায়নি। তিনি বলেন, পৃথিবীর মধ্যে সব থেকে থেকে জটিল মাটির গঠন, খরস্রোতাসহ নানা কঠিন সমস্যা, ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত মোকাবেলা করে দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু আজ সপ্ন থেকে বাস্তবে রূপ নিয়ে উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে। এরপরও দেশে আজও ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত এখনো অব্যাহত আছে, সেই ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

ড. রাজ্জাক বলেন, বাংলার মানুষ আরেকটি বার শেখ হাসিনাকে সুযোগ দিলে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে, ২০৩৫ সালের মধ্যে দেশ উন্নত দেশে রুপান্তরিত হবে। বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ের জন্য খালেদা-তারেক জিয়াকে দৌড়ানো উচিত ছিলো, তারেক জিয়াতো দেশ ছেড়ে পালিয়েছেই।

এসময় জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x