কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:

কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের দুই ছাত্রাবাসের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের পর সকল হল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের দায়িত্বপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মুনির হোসেনের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চলমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর থেকে অনির্দিষ্টকাল পর্যন্ত পলিটেকনিক আবাসিক হল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ সন্ধ্যার মধ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের হল ছাড়তে বলা হয়। পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাউন্সিলের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মঙ্গলবার দুপুরে ক্যাম্পাসে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের লালন শাহ ছাত্রাবাসের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করা হয়। মীর মশাররফ হোসেন ছাত্রাবাসের ছাত্ররা বহিরাগত ও কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার সদ্য সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি আনাস পারভেজসহ তার নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়। হামলায় লালন শাহ ছাত্রাবাসের ছাত্রদের মারপিট ও ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়।

এ ঘটনায় প্রায় ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনার পর থেকেই পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার সদ্য সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি আনাস পারভেজের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি মুঠোফোনটি রিসিভ করেননি। কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছাব্বিরুল আলম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষ এড়াতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. মুনির হোসেন বলেন, সকল পর্যায়ের চলমান সব একাডেমিক কার্যক্রম যথারীতি অব্যাহত থাকবে। সকল পর্যায়ের ক্লাস ও পরীক্ষা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুধুমাত্র আবাসিক হল তিনটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি বলেন, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তবে নির্দিষ্ট কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা এখনও জানা যায়নি। এতে প্রায় ১০ জন আহত হয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x