ঢাকা থেকে কুষ্টিয়া যাওয়ার পথে চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে প্রাণ গেল মাহাবুব আদর নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থীর। সে মার্কেটিং বিভাগের ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের আবাসিক শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমান এবং ওই শিক্ষার্থীর চাচা ফরহাদ হোসেন।

জানা যায়, সকালে পাবনার জেলার পাকশি সেতুতে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

তার চাচা ফরহাদ বলেন, মাহাবুব ঢাকা থেকে কুষ্টিয়া যাওয়ার সময় পাবনার পাকশি সেতুতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সে জানালা দিয়ে মাথা বের করা ছিল। তখন সেতুর রেলিংয়ের (লোহা) সঙ্গে ধাক্কা লেগে পড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তার পরিবারের সদস্যরা সেখানে গেছে।

হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমান বলেন, তার বন্ধুদের মাধ্যমে আমি এ বিষয়ে জেনেছি। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে। আমি ওর বন্ধুদের মাধ্যমে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। আমরা মুহসীন হল পরিবার এ ঘটনায় খুবই মর্মাহত।

মাহাবুবের এরকম হঠাৎ চলে যাওয়ায় ভেঙে পড়েছেন তার সহপাঠীরা। তার হলের রুমমেট মো. রাহাত শিকদার বলেন, মাহাবুব খুবই ভালো একজন ছেলে ছিল। সে খুবই মিশুক, হাসিখুশি ও প্রাণবন্ত থাকত। তার এভাবে হঠাৎ চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছি না। দুঃস্বপ্নের মতো লাগছে।

জানা যায়, মাহাবুবের বাড়ি জয়পুরহাট জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার সদর ইউনিয়নে। তিন সদস্যের পরিবারে সে তার পিতা মাতার একমাত্র সন্তান। তার পিতার নাম মো. হান্নান মিঠু। ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনায় অত্যন্ত মনোযোগী এবং মেধাবী ছিলেন আদর। পড়েছেন জয়পুরহাট আর বি সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ে এবং ঢাকার মাইলস্টোন কলেজে। ২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে মার্কেটিং ডিপার্টমেন্টে পড়ার সুযোগ হয় তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x