স্বাস্থ্য খাতে ক্রমাগত উন্নতি হচ্ছে দাবি করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, চিকিৎসার জন্য রোগীদের আর বিদেশে যেতে হবে না। এমনকি মফস্বল থেকে ঢাকাতেও আসা লাগবে না।

বাংলাদেশের চিকিৎসকদের আচরণ ও হাসপাতালের পরিবেশের কারণে রোগীরা দেশের বাইরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন- এমন বক্তব্য রাখার দুই সপ্তাহের মাথায় এই বিপরীত বক্তব্য এলো তার পক্ষ থেকে।

বুধবার শেখ রাসেল জাতীয় গ্যস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে এক অনুষ্ঠানে কথা বলছিলেন তিনি।

দেশে চিকিৎসা ব্যবস্থার ‍উন্নতি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘দেশে হার্টের চিকিৎসা ভালো হচ্ছে। কিডনির বিশেষায়িত চিকিৎসা হচ্ছে। বার্ন ইনস্টিটিউটে এখন দেশের সব জায়গা থেকে মারাত্মক দগ্ধ রোগীরা আসছে।

‘নিউরো সায়েন্সে দেশে এখন যেভাবে চিকিৎসা হচ্ছে সেগুলো আগে ছিলো না। এগুলো প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে হয়েছে। আমরা সারাদেশে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করছি যেন চিকিৎসার জন্য ঢাকাতেই দীর্ঘ সময় ধরে কাউকে আসতে না হয়।’

তিনি বলেন, ‘আমরা নিউরো, অর্থোপ্যাডিক, মেন্টাল হেলথ এবং স্কিনের চিকিৎসার জন্য বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছি। ডিপিপি হয়ে গেছে। বিদেশে আর কাউকে দৌড়াতে হবে না। বাংলাদেশে বিশ্বমানের ওষুধ তৈরি হচ্ছে। এক্সপার্ট হচ্ছে। এটিও সরকারের অনেক বড় সফলতা।’

মন্ত্রীর এই বক্তব্য গত ১০ অক্টোবর চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পরিদর্শক করতে গিয়ে দেয়া বক্তব্যের পুরো বিপরীত। সেদিন তিনি দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোর যেসব সমস্যা, সেগুলোর প্রায় সব তুলে ধরে নিজেই তুলোধুনা করেন।

সেদিন তিনি বলেন, ‘কেবল ভালো ব্যবহার ও পরিচ্ছন্নতার অভাবে দেশ থেকে হাজারো মানুষ ভারত, সিংগাপুর বা থাইল্যান্ডে চিকিৎসার জন্য যাচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x