হাসান আহাম্মেদ সুজন জামালপুর জেলা প্রতিনিধি।
বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেছেন, ভোলায় শান্তিপূর্ণ বিএনপির কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসী ও পুলিশ বাহিনী হামলা ও গুলি চালিয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিমকে হত্যা এবং ৬০জন নেতাকর্মীকে আহত করেছে। তিনি হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এই হত্যার ঘটনায় সরকারকে দায়ি করেছেন। বিদ্যুৎ খাতে সরকারের অব্যবস্থাপনা ও চরম লোডশেডিং এর প্রতিবাদে জামালপুর জেলা বিএনপি আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ৩১জুলাই রবিবার বিকেলে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে স্টেশন বাজার মোড় জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বিএনপিনেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স আরও বলেন, ভোলার এই হত্যাকান্ড ঘটনা ছিল সরকারের ঠান্ডা মাথায় খুনের পরিকল্পনা। সরকারের আজ পায়ের নিচে মাটি নেই। সরকার শুধু বিদ্যুৎ আর জ্বালানী খাতে নয়, প্রতিটি খাতে আজ চরম অব্যবস্থাপনা দেখা দিয়েছে। এই সরকার ব্যর্থ সরকারের পরিণত হয়েছে। আগামী দিনে ভোলার আব্দুর রহিমের যে রক্ত ঝড়িয়েছে তার শপথ নিয়ে আগামী দিনে বিএনপিনেতাকর্মীদের এই সরকারের পতন ঘটানো হবে বলে হুশিয়ারি দেন তিনি।
জামালপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফরিদুল কবির তালুকদার শামীমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ারেছ আলী মামুনের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আনিছুর রহমান বিপ্লব, সফিউর রহমান সফি, অ্যাডভোকেট মনজুর কাদের বাবুল খান, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম খান সজীব, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন মিলন, জেলা মৎস্যজীবী দলের সভাপতি আব্দুল হালিম প্রমুখ।
এসময় জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x