বাংলাদেশি ফুটবল ভক্তদের অপেক্ষার প্রহর শেষ করে ঢাকায় এসে পৌঁছেছে কাতার বিশ্বকাপ ফুটবলের ট্রফি। বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফি বহনকারী চাটার্ড বিমানটি।

বাংলাদেশে ৩৬ ঘণ্টার সফরে বিশ্বকাপ ট্রফির সঙ্গে এসেছেন ফিফার ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। সেই দলেই আছেন ১৯৯৮ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের অন্যতম খেলোয়াড় ক্রিশ্চিয়ান কারেম্বু। এছাড়াও সঙ্গে রয়েছেন ফিফার অফিসিয়াল পার্টনার কোকাকোলার কর্তাব্যক্তিরাও।

এর আগে মঙ্গলবার (৭ জুন) বিশ্বকাপের ট্রফিটি পাকিস্তান পৌঁছায়। পাকিস্তান থেকে আজ বাংলাদেশে এসে পৌঁছালো। ঢাকায় ৩৬ ঘণ্টার সফর শেষে ট্রফিটি যাবে পূর্ব তিমুর।

বাফুফে থেকে এর আগে বলা হয়েছিল, বাংলাদেশ সময় বুধবার পৌনে এগারোটা থেকে এগারোটার মধ্যে ট্রফিটি ঢাকায় পৌঁছাবে। সেই সময় থেকে কিছুটা দেরি করেই পাকিস্তান থেকে কোকা-কোলার চার্টার্ড ফ্লাইটে করে ঢাকায় আসে ট্রফিটি।

বিশ্বকাপের ট্রফিটি ঢাকায় পৌঁছালে ফিফার কর্মকর্তাদের কাছ থেকে সেটি গ্রহণ করেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বাফুফে নির্বাহী সদস্য ও ফিফা কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ সহ আরও অনেকে। বিমানবন্দর থেকে ট্রফিটি নিয়ে রাখা হবে হোটেল র‍্যাডিসন ব্লুতে।

আজ বিকেলে রাষ্ট্রপতির বাসভবনে এবং সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হবে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের আকর্ষনীয় এই ট্রফিটিকে। ট্রফির সাথে বাফুফে নির্বাহী কমিটির শীর্ষ ৬-৭ জন কর্তাব্যক্তির যাবার কথা রয়েছে।

দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর হোটেল র‍্যাডিসনে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার ব্যবস্থা থাকবে। এরপর বিকেলে আর্মি স্টেডিয়ামে ফুটবল ভক্তদের ট্রফি প্রদর্শন করা হবে। সাথে থাকবে বিশেষ কোকা-কোলা কনসার্ট। শুক্রবার রাতে ট্রফি ঢাকা থেকে নিয়ে যাওয়া হবে পূর্ব তিমুরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x