টানা তিনদিনের ছুটিতে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার প্রধান প্রবেশপথ পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে দীর্ঘ ৫ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গরমের মধ্যে এমন যানজট ভোগান্তি বাড়িয়েছে এই রুটে চলাচলকারী চালক ও যাত্রীদের। অন্যদিকে যমুনা নদীর পানি কমে যাওয়ায় ফেরি চলাচলও ব্যাহত হচ্ছে

যাত্রীবাহী বাস ও ব্যক্তিগত যানবাহন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ফেরি পারাপার করছে। যার ফলে পণ্যবাহী ট্রাকগুলো ২-৩ দিন অপেক্ষা করেও ফেরি পার হতে পারছে না। এতে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে মালবাহী যানবাহনের শত শত চালক ও শ্রমিক।

এদিকে এসব সুযোগ কাজে লাগিয়ে চলছে সিরিয়াল বাণিজ্য। একাধিক ট্রাক ড্রাইভার জানিয়েছেন, ১৪৬০ টাকা সরকার নির্ধারিত মূল্যের পরিবর্তে বড় ট্রাক থেকে নেয়া হচ্ছে ২১০০ টাকা করে। আর ছোট ট্রাক ১৭০০ থেকে ১৮০০ টাকা। সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি শুনেছেন এবং ক্ষতিয়ে দেখবেন বলে জানান।

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের আরিচা পয়েন্টের গেজ রিডার ফারুক হোসেন বলেন, বিগত ৭ দিনে যমুনা নদীর পানি ৩০ সেন্টিমিটার কমেছে।

 

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের উপ-ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, নাব্যতা সঙ্কটের কারণে ফেরি চলাচল মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। এতে উভয় ঘাটে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

মানিকগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পাটুরিয়া ঘাটের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের সর্বশেষ খবর অনুয়ায়ী, পাটুরিয়া ঘাটে প্রায় ১ হাজার যানাবহন ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় আছে। ঘাটে পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যাই বেশি। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x