ভোজ্যতেল ও চিনিসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের আমদানি শুল্ক কমাতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সোমবার (১৪ মার্চ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয় থেকে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, দাম সহনীয় রাখতে রোববার আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে ভোক্তা পর্যায়ে নিত্যপণ্যের ভ্যাট তুলে দেওয়াসহ বেশকিছু সিদ্ধান্ত হয়েছিল। রোববারের সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দিয়েছেন। তিনি খুব শক্তভাবে একটা নির্দেশনা দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, ভোজ্য তেলের রিটেইলার (ভোক্তা) পর্যায়ে ভ্যাট মওকুফ করা হয়েছে। আইনমন্ত্রী এসআরওতে সই করেছেন বলে জানিয়েছেন। এছাড়া সোমবার এনবিআরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে যে, ইমপোর্ট পর্যায়ে যে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আছে, সেটা কতটুকু কমানো যায় দেখতে হবে এবং যথাসম্ভব কমাতে হবে।

‌‘আমদানি পর্যায়ে ভ্যাট কমালে আমাদের ধারণা এর ডিরেক্ট পজিটিভ ইমপ্যাক্ট পড়বে’। বলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

এক প্রশ্নের জবাবে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, শুধু ভোজ্য তেল নয়, চিনি বা যেগুলো বেশি প্রয়োজনীয়, সেগুলোর ক্ষেত্রে ভ্যাট কমাতে বলা হয়েছে। যেটাই খুবই ক্রাইসিসে থাকবে, সেটার ভ্যাট একদম কম পর্যায়ে নিয়ে আসতে হবে। ভ্যাট একেবারে লোয়েস্ট লেভেলে নেওয়া যায় কি না সে বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করে এনবিআরকে শিগগিরই বিবেচনা করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x