রুবেল শিকদার:

দূরপাল্লার রুটে পর্যটকবাহী বাস চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী।

তিনি বলেছেন, একমাত্র সরকারি পরিবহন সংস্থা বিআরটিসি লোকসানের বৃত্ত থেকে বের হয়েছে। তবে যাত্রীদের কাছ থেকে অভিযোগ গ্রহণের জন্য বাসে বিশেষ বাক্স রাখতে হবে। এছাড়া দূরপাল্লার রুটে চালু করা হবে পর্যটক পরিবহনের বাস।

শনিবার মতিঝিলে বিআরটিসি প্রধান কার্যালয়ে ‘বদলে যাচ্ছে বিআরটিসি’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, বিআরটিসির সামনে আরও বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে শূন্য পদে নিয়োগ করা, দুর্নীতি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা এবং যাত্রী সেবার মান বাড়ানো। এসব ক্ষেত্রেও উন্নতি করতে হবে।

সভায় বিআরটিসির চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে বাসচালকদের বাস চালানোর সময় দৈনিক ৮ ঘণ্টার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখার চেষ্টা করছে বিআরটিসি। এ জন্য সম্প্রতি ১০০ চালক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তবে ট্রাক চালকদের ক্ষেত্রে এখনো দৈনিক ৮ ঘণ্টার সময়সীমা মানা সম্ভব হচ্ছে না। নতুন চালক নিয়োগ দিয়ে এটি মানার পরিকল্পনা নেওয়া হবে। বিআরটিসিকে একটি আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত মানসম্মত প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বুয়েটের দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক সাইফুন নেওয়াজ। বিআরটিসি’র উন্নয়নের তথ্যচিত্র তুলে ধরেন জেনারেল ম্যানেজার (হিসাব) মো. আমজাদ হোসেন।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, ড্রাইভার্স টেকনিক্যাল কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান নূর নবী শিমু, ঢাকা জেলা নারী চালক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি খাদিজা রহমান প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x