নিজস্ব প্রতিবেদক:
যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো: মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেছেন : দেশ বিরোধী শক্তি জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক , এদেশের মানুষের কথা বলার অধিকার কেড়ে নেয়ার সংগঠন বিএনপি জামায়াত দেশ জাতির কল্যানে রক্ত দেয়ার ইতিহাস নেই , শুধু তাদের রক্ত নেয়ার ইতিহাস রয়েছে ।

আজ ২২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর শ্যামলী ক্লাব মাঠে দেশব্যাপী দেশবিরোধী বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশের নির্দেশে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে তিনি একথা বলেন।
ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল সভাপতিত্ব ও ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন এর সঞ্চালনা করেন।
তিনি বলেন ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার মধ্য দিয়ে বেঈমান মোস্তাকের উত্তরসূরী , বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা খুনি জিয়া ক্ষমতা আসে ।
২০১৪ সাল থেকে ২০১৫ সালে বিএনপি, জামায়াত অবৈধ অবরোধ ও হরতালের নামে সারাদেশে আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে ১৬৫ জন নিরীহ লোক হত্যা করে , তাদের সেই আন্দোলন এখনো প্রত্যাহার করেনি । তারা আন্দোলন করে সরকার পতনে ব্যর্থ হয়ে , এখন মিথ্যাচার ও নালিশের রাজনীতি শুরু করেছে ।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র নেতৃত্বে দেশ যখন উন্নয়নের চরম শিখরে তখনি বিএনপি জামায়াত অপরাজনীতি শুরু করেছে ।
যুব সমাজেকে তাদের এই অপরাজনীতি রুখে দেয়ার আহবান জানান যুবলীগ সাধারন।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন-বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলার মুক্তিকামী, দেশপ্রেমী জনতার পাশে পবিত্র দায়িত্ব হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের নেতা-কর্মীরা দাঁড়িয়েছে। বিএনপি-জামাতের সকল ষড়যন্ত্র, সকল চক্রান্তকে রুখে দেয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ আজকে ঐক্যবদ্ধ, প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আজকের এই সমাবেশে আমরা বাংলার যুবসমাজ ও বাংলার মানুষের কাছে বলতে চাই, বিএনপি-জামাত একটি জঙ্গি ও সন্ত্রাসী সংগঠন। তারা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের পৃষ্ঠপোষক। বাংলা ভাই, আব্দুর রহমানের মত জঙ্গি সৃষ্টিকারী, ১৭ আগস্ট দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলাকারী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাসহ নানা অপকর্মে দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করেছিল বিএনপি-জামাত। সেই বিএনপি-জামাত আজকে নতুন করে বাংলাদেশকে আবারো বিশ্বের বুকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে জঙ্গি হামলার চক্রান্ত করছে। সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করে উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা বিনির্মাণে বাধাগ্রস্ত করছে।

তিনি আরও বলেন-বিএনপি-জামাতের নেতারা বক্তব্য দেন রক্ত যত লাগে দেব, সরকারের পতন করে ছাড়বো। আমি আজকের এই সমাবেশ থেকে বলতে চাই, বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে বিএনপি-জামাতের রক্ত দেওয়ার কোন ইতিহাস নাই। তাদের আছে শুধু দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের ইতিহাস।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস মোঃ রফিকুল ইসলাম, ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দিন খসরু, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন পাভেল, উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শামছুল ইসলাম পাটোয়ারী, সহ-সম্পাদক আলমগীর হোসেন শাহ জয়, বাবলুর রহমান বাবলু, কার্যনিবাহী সদস্য ইঞ্জি. মোঃ মুক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, ডাঃ আওরঙ্গজেব আরুসহ কেন্দ্রীয় মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ড যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x