ঢাকার ধামরাইয়ে বসুন্ধরা সিমেন্টের শুভ হালখাতা ১৪২৮ ও রিটেইলার সম্মেলন ২০২২ উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বসুন্ধরা সিমেন্ট ও সাভারের বাইপাইলের মেসার্স আমিন ট্রেডিং কর্পোরেশনের আয়োজনে ধামরাইয়ের আলাদিনস পার্কে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাভার ও ধামরাইয়ের বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের সত্ত্বাধিকারীরা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মেসার্স আমিন ট্রেডিং কর্পোরেশনের সত্ত্বাধিকারী হাজী মো. আমিনুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইষ্ট ওয়েষ্ট মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বসুন্ধরা গ্রুপের সিমেন্ট সেক্টরের চিপ মার্কেটিং অফিসার খন্দকার কিংশুক হোসেইন ও এজিএম (সেলস) মো. জিয়ারুল ইসলাম।

উপস্থিত ছিলেন হেড অব ফাইন্যান্স (ট্রেজারার, সেক্টর বি বসুন্ধরা গ্রুপ) নুরে আলম সিদ্দিকী, জিএম (সেলস-সিমেন্ট সেক্টর) আব্দুল লতিফ প্রমুখ।

প্রধান অতিথি ইমদাদুল হক মিলন বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের উত্পাদিত পণ্য গুনগত মানের দিক থেকে কারো সাথে আপোষ করে না। এরমধ্যে বসুন্ধরা সিমেন্ট অন্যতম। এ সিমেন্ট দিয়ে কোন ভবন তৈরি করলে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের বন্ধন যুগযুগ থাকবে। বসুন্ধরার শ্লোগান হলো ‘দেশ এবং মানুষের কল্যাণে’। বসুন্ধরা গ্রুপ বিভিন্ন ভাবে মানুষের কল্যাণে কাজ করে থাকে। এ সময় তিনি অসহায়দের ঘর, দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার যোগানসহ বসুন্ধরা গ্রুপের বিভিন্ন মানবিক সহায়তার কথা উল্লেখ করেন।

খন্দকার কিংশুক হোসাইন বক্তব্যে বলেন, সিমেন্টশিল্পে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উৎপাদনক্ষম আধুনিক কারখানা রয়েছে একমাত্র বসুন্ধরা সিমেন্টের। শুরু থেকেই বসুন্ধরা সিমেন্টের গুনগত মান নিশ্চিত করে আসছে। বর্তমানে দেশের সবচেয়ে বেশী সিমেন্ট উত্পাদন করছে এ প্রতিষ্ঠানটি।

আলাদিনস পার্কের উন্মুক্ত মঞ্চে সাত শতাধিক ব্যবসায়ী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। হালখাতা অনুষ্ঠানের আলোচনা শেষে ব্যবসায়ীদের মধ্যে সেরা ১০ জন বিক্রেতাকে পুরস্কার প্রদান ও র‌্যাপেল ড্র এর আয়োজন করা হয়। প্রথম পুরস্কার একটি মোটরসাইকেল (ফেরদৌসি সরকার এন্টারপ্রাইজ), দ্বিতীয় পুরস্কার একটি এলইডি টিভি (সাজিদ এন্টারপ্রাইজ) ও তৃতীয় পুরস্কার একটি স্টীলের আলমিরা (রানা এন্টারপ্রাইজ) পেয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x