নিউ ইয়র্কে বছরে ৮২ বার উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচারের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে বছরে ৮২ বার মাইকে উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচারে নতুন আইনি নির্দেশনা জারি করেছেন নিউইয়র্ক সিটির মেয়র এরিক অ্যাডামস ও নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এনওয়াইপিডি) কমিশনার। প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের জন্য ৫ বার হিসেব করে বছরে ১ হাজার ৮শত ২৫ বার আযান সম্প্রচার হবার কথা। কিন্তু নিউ ইয়র্ক শহরের বসবাসকারী সকল ধর্মকে সম্মান, সকল লোকেদের নিরাপদ এবং হয়রানিমুক্তভাবে সবার ঐতিহ্যকে অনুশীলন করতে দেওয়ার উদ্দেশ্যে মেয়র অ্যাডামস উক্ত ঐতিহাসিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

গত ২৯ আগষ্ট নিউ ইয়র্কের মসজিদগুলোতে বছরে ৮২ বার মাইকে উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচারে নতুন আইনি নির্দেশনা জারি করেছেন নিউইয়র্ক সিটির মেয়র এরিক অ্যাডামস ও নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এনওয়াইপিডি) কমিশনার। জারিকৃত নতুন আইনি নির্দেশনার ফলে শহরে বসবাসকারী ১৫ লাখ মুসলমানের দ্বিধা-দ্বন্দ্ব দূর হবে বলে আশা করছেন নগর কর্তৃপক্ষ। যুক্তরাষ্ট্রের বাংলা সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এ খবর জানিয়েছেন।

নতুন নির্দেশনার অধীনে জারিকৃত আদেশে বলে হয়েছে নিউ ইয়র্কের মসজিদগুলোতে প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজের আগে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দেড়টার মধ্যে এবং পবিত্র রমজান মাসে প্রতিদিন সন্ধ্যায় ইফতার বা মাগরিবের নামাজের সময় মাইকে উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচার করা যাবে। নিউ ইয়র্কের সকল ধর্মকে সম্মান, সকল লোকেদের নিরাপদ এবং হয়রানিমুক্তভাবে তাদের ঐতিহ্যকে অনুশীলন করতে দেওয়াই মেয়র অ্যাডামসের একটি ঐতিহাসিক পদক্ষেপ।

মেয়র অ্যাডামস বলেন, খুব দীর্ঘ সময় ধরে, এমন একটি অনুভূতি ছিল যে আমাদের সম্প্রদায় গুলিকে তাদের প্রার্থনার আহ্বান বাড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়নি। আজ আমরা লাল ফিতা কেটে স্পষ্টভাবে বলছি যে মসজিদ এবং উপাসনালয় গুলি শুক্রবারে এবং রমজানের সময় প্রয়োজনীয় অনুমতি ছাড়াই তাদের প্রার্থনার জন্য স্বাধীনভাবে আহ্বান জানাতে পারবেন। আমরা আমাদের মুসলিম বিশ্বাসের ভাই ও বোনেরা জানতে চাই যে তারা নিউইয়র্ক সিটিতে তাদের বিশ্বাসের সাথে বসবাস করতে স্বাধীন। কারণ আইনের অধীনে আমাদের সবার সাথে সমান আচরণ করা হবে। আমাদের প্রশাসন শেষ পর্যন্ত এটি করতে পারায় আমরা গর্ববোধ করছি।”

এ গুরুত্বপূর্ণ কাজটি আমাদের এনওয়াইপিডি কমিউনিটি অ্যাফেয়ার্স ব্যুরোর নেতৃত্বে, ধর্মীয় স্বাধীনতা, বোঝাপড়া এবং সকলের জন্য টেকসই শান্তি ও সমৃদ্ধির ধারণার জন্য একটি মৌলিক পরিষেবা বলে উল্লেখ করেছেন এনওয়াইপিডির কমিশনার এডওয়ার্ড ক্যাবান৷

তিনি উল্লেখ করেন আমাদের পরিশ্রমী পুলিশ অফিসাররা জানেন যে আমাদের বৈচিত্র্য, আমাদের বিভিন্ন পটভূমি এবং অভিজ্ঞতার সমৃদ্ধ মিশ্রণ, যা প্রায়শই আমাদের শক্তিশালী করে তোলে। এই ধারণার প্রতি এনওয়াইপিডির গর্বিত আলিঙ্গন আমাদের শক্তিশালী সম্প্রদায়ের আউটরিচ। আমাদের অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রচেষ্টা এবং আমাদের চলমান জননিরাপত্তা মিশনের কেন্দ্রবিন্দু।

আযান, যার বানান আজানও বলা হয়, একটি সংক্ষিপ্ত বার্তা সাধারণত স্পিকার বা উপাসনালয়ের পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেমের মাধ্যমে প্রকাশ্যে সম্প্রচার করা হয়। মুসলিম বিশ্বাসের সদস্যদের প্রার্থনার জন্য আহ্বান করা হয়। এনওয়াইপিডির নতুন আইনি নির্দেশিকা মসজিদ এবং মসজিদগুলির জন্য স্পষ্ট করে যে নিউ ইয়র্ক সিটিতে প্রার্থনার জন্য আযান দেওয়া অনুমোদিত এবং শহরের আশেপাশে শব্দ বিধিনিষেধ থাকা সত্ত্বেও নিষিদ্ধ নয়।

নতুন নির্দেশনার অধীনে মসজিদগুলোতে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে দেড়টার মধ্যে এবং পবিত্র রমজান মাসে প্রতিদিন সন্ধ্যায় ইফতার বা মাগরিবের নামাজের সময় মাইকে উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচার করা যাবে।

এনওয়াইপিডির কমিউনিটি অ্যাফেয়ার্স ব্যুরো এবং মুসলিম বিশ্বাসের নেতারা স্থানীয় সম্প্রদায়ের নেতাদের এবং স্টেকহোল্ডারদের কাছে আযানের নতুন পরিকল্পনাগুলি জানাতে মসজিদ ও মসজিদের সাথে প্রতিটি পাড়ায় সহযোগিতামূলকভাবে কাজ করবে। তারা নিশ্চিত করতে কাজ করবে যে আযান সম্প্রচারের জন্য ব্যবহৃত যে কোন শব্দ ডিভাইস যথাযথ ডেসিবেল মাত্রায় এবং শহরের প্রশাসনিক কোডের মধ্যে নয়েজ কোডের নিয়ম অনুসারে সেট করা হয়েছে। ব্রুকলিনের মুসলিম কমিউনিটি সেন্টারের ইমাম আবদুল্লাহ সালেম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি মিশরে বেড়ে উঠেছেন এবং আমার সারাজীবন প্রার্থনার আহ্বান শুনেছেন, আমি সত্যিই এর সৌন্দর্য এবং শান্তিপূর্ণ অনুস্মারক মিস করেছি কিছুক্ষণ সময় নিতে এবং আপনার কাছে যা আছে তার প্রশংসা করার জন্য। আমার নিজের শহরে এটি আবার শুনতে পেরে আমি খুবই কৃতজ্ঞ।’

একটি ইসলামিক স্কুলের প্রিন্সিপাল হিসেবে, আমি দেখছি আমার ছাত্ররা মুসলিম হিসেবে তাদের পরিচয় বজায় রাখার জন্য সংগ্রাম করছে। অনেকে এটা শেয়ার করতে ভয় পায়, এবং বাকিরা দ্বিধায় পড়ে।

আইডিয়াল ইসলামিক স্কুলের অধ্যক্ষ সোমাইয়া ফিরোজি বলেন, আমাদের পবিত্রতম দিনগুলিতে জনসমক্ষে প্রার্থনার আযান শোনার জন্য তাদের কাছে নিশ্চিত হবে যে এটি তাদের শহর, এবং তাদের অন্য সবার মতো উপাসনা করার অধিকার রয়েছে।

এর আগে গত ২৪ আগস্ট প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের মধ্যে মাত্র তিন ওয়াক্ত নামাজের সময় মসজিদের সাথে সংযুক্ত মাইকে উচ্চস্বরে আজানের অনুমতি দেন নিউ ইয়র্ক সিটির পুলিশ প্রশাসনের ডেপুটি কমিশনার মার্ক টি স্ট্যুয়ার্ট। শুধুমাত্র জোহর, আসর ও মাগরিবের সময় বিভিন্ন মসজিদের উচ্চস্বরে আজান দেওয়া যাবে। তবে ফজর ও এশার নামাজের সময় মসজিদের মাইকে উচ্চস্বরে আজান প্রচার করা যাবে না। কারণ সিটি কোডের ধারা অনুযায়ী সূর্যাস্তের পর থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত শব্দ নিয়ন্ত্রণের আইন রয়েছে। এসময় উচ্চস্বরে শব্দকরা যাবে না। নিউ ইয়র্কের মুসলিম কমিউনিটির দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে উক্ত অনুমতি প্রদান করেছিলেন। নিউইয়র্ক সিটির মেয়র এরিক অ্যাডামস ও নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্ট (এনওয়াইপিডি) কমিশনারের যা মাইকে উচ্চস্বরে আযান সম্প্রচারের নতুন আইনি নির্দেশনা জারি করায় পুর্বের আদেশ বাতিল করা হয়।

সূত্র: বাংলা প্রেস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *