রংপুর ব্যুরো: রংপুরের পীরগাছা উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি/সম্পাদক পদে দেশ বিরোধী আলবদর রাজাকারের ছেলে সিভি দাখিলের অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, কৈকুড়ী ইউনিয়নে শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান রাজাকার আ: জব্বার রব্বানীর ছেলে রাসেল মিয়া ও লুৎফর রহমান ছেলে আব্দুল লতিফ মিয়া। স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের অভিযোগ,

কোন রাজাকারের ছেলে ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি/সম্পাদক পদে থাকতে পারবে না। ওয়ার্ড কমিটিতে থাকতে হলে আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান হতে হবে।

এ ব্যাপারে আ: জব্বার রব্বানীর ছেলে রাসেল মিয়া বলেন, আমার বাবার বিরুদ্ধে যে, অভিযোগ উঠেছে তা সম্পন্ন মিথ্যা। আমার বাবা যদি রাজাকার হয় তাহলে কৈকুড়ী ইউনিয়নে কিছু মুক্তিযোদ্ধা আছেন মুক্তিযোদ্ধো কালীন সময় তাদের জীবনের নিরাপত্তা দিয়েছিলেন কেন? সেই মৃত বাবাকে রাজাকার বানিয়ে দিয়েছে এই এলাকার কিছু কতিপায় লোক।

কৈকুড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ফিরোজ মিয়া বলেন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্পাদক পদে রাজাকারের দুই ছেলে আবেদন করেছে এটা সত্য। তবে তারা কখনোই এই কমিটিতে থাকতে পারবে না। যারা প্রকৃত আওয়ামী পরিবারের সন্তান তারাই এই কমিটিতে সভাপতি/সম্পাদক নির্বাচিত হবে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার ওয়াজেদ আলী জানান, মৃত আ: জব্বার রব্বানী ও লুৎফর রহমান এরা প্রকৃত রাজাকার। এরা মুক্তিযোদ্ধাকালিন সময় দেশের জন্য বিরোধীতা করেছে।

এবিষয়ে পীরগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি তছলিম উদ্দিন বলেন, ওয়ার্ড কমিটিতে অনেকেই আবেদন করেছে যাচ্ছাই-বাচ্ছাই শেষে প্রকৃত আওয়ামীলীগ পরিবার থেকে সিলেকশনের মাধ্যমে ত্যাগি নেতাকর্মীদের সভাপতি/সম্পাদক নির্বাচিত করব। রাজাকারের ছেলেকে কমিটিতে আনার বিষয়ে যে সহযোগিতা করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখানে কোন রাজাকারের ছেলে সভাপতি/ সম্পাদক হতে পারবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x