মঙ্গলবার, ১৪ Jul ২০২০, ০৩:১৪ পূর্বাহ্ন

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages
Filter by Categories
24 hour essay writing service
Uncategorized
অপরাধ
অর্থনীতি
আদালত
আন্তর্জাতিক
আবহাওয়া
ইসলাম
কলাম
ক্যাম্পাস
ক্রিকেট
খেলাধুলা
চাকুরির খবর
ছবি
জাতীয়
জীবন ব্যবস্থা
তথ্যপ্রযুক্তি
ধর্ম
নির্বাচিত খবর
পরামর্শ
পুঁজিবাজার
প্রবাস
ফিচার
ফুটবল
ফেসবুক কর্নার
বিনোদন
বিবিধ
ভিডিও
ভোটের হাওয়া
মতামত
রাজধানী
রাজনীতি
রিপোর্টার পরিচিতি
শিক্ষা
শিরোনাম
শিল্প ও সাহিত্য
শীর্ষ খবর
সকল বিভাগ
সবখবর
সম্পাদকীয়
সর্বশেষ
সংস্কৃতি
সাক্ষাৎকার
সারাদেশ
সিটি কর্পোরেশন
স্বাস্থ্য কথা
শিরোনাম

প্রবাসীরা আমার আপনজন, এদের সম্মান ক্ষুণ্ন করবেন না – মিসেস গ্লোব বাংলাদেশ -এর প্রতিনিধি জারিন তাসনিম অন্তরা

প্রবাসীরা আমার আপনজন, এদের সম্মান ক্ষুণ্ন করবেন না  – মিসেস গ্লোব বাংলাদেশ -এর প্রতিনিধি জারিন তাসনিম অন্তরা

এই বাংলার সন্তানেরা নিজ ভূমির দুঃখ ঘোচাতে ‘পৃথিবীর পথে” বেরিয়ে পড়েছিলেন। নিজভূম থেকে পৃথিবীর পথে ছড়িয়ে পড়া এই প্রবাসীরা শুধু ব্যক্তিক প্রয়োজনেই যাননি। যাননি যে, তার প্রমাণ বাংলাদেশের অর্থনীতিতে তাঁদের অবদান। উন্নত জীবনের আশায়, উচ্চশিক্ষার টানে কিংবা অন্য যে কারণেই বাংলাদেশের মানুষ বিদেশে যাক না কেন, তাঁর মন পড়ে থাকে এই জল-হাওয়াতেই। আর এ কারণেই এখানে রেখে যাওয়া স্বজনদের, এখানকার মাটিকে তাঁরা কখনো ভুলতে পারেন না। নিজেদের কষ্টার্জিত উপার্জনের অর্থ নিয়মিত পাঠিয়ে তাঁরা এ দেশকে গড়ে তোলেন পরোক্ষে। শুধু অর্থের বিচারেই প্রবাসীদের অবদান বোঝা সম্ভব নয়। বর্তমানে বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থাকা প্রায় দেড় কোটি বাংলাদেশি বেকারত্বের সংকট মোকাবিলাতেও সরাসরি অবদান রাখছেন। রয়েছে তাঁদের সরাসরি তত্ত্বাবধানে পরিচালিত বিভিন্ন সামাজিক কল্যাণমূলক সংগঠন। অথচ এই সবকিছুর পরও এই প্রবাসীদের নানা অবজ্ঞার মুখে পড়তে হয়।

 

নিজ দেশে স্বজনদের কাছে যখন তাঁরা ফিরে আসেন, তখন থেকেই তাঁদের মুখোমুখি হতে হয় নানা হেনস্তার,প্রতিনিয়ত সোশ্যাল মিডিয়া ও বিভিন্ন মাধ্যমে প্রবাসীদের নিয়ে কটূক্তি করা হয়। প্রবাসজীবন মানেই নিঃসঙ্গতা। তবু দেশ ও দেশের মানুষকে বুকে পুষে এই নিঃসঙ্গতা মেনে নিয়ে প্রবাসীরা করে যান কঠোর পরিশ্রম। কত ধরনের ত্যাগ স্বীকার করতে হয় তাঁদের। অথচ বিদেশে বাংলাদেশের রাষ্ট্রমালিকানাধীন ব্যাংক থেকে শুরু করে, বাংলাদেশি দূতাবাস, বাংলাদেশে বিমানবন্দর পর্যন্ত প্রবাসীরা নানা বিড়ম্বনার মুখে পড়েন। অথচ বাংলাদেশ, এর সমাজ ও অর্থনীতিতে অবদানের বিপরীতে এটা কখনোই তাঁদের প্রাপ্য হতে পারে না। এটা সত্য যে, বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার প্রবাসীদের কল্যাণে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে; কিন্তু তা যথেষ্ট নয়। না, প্রবাসীরা কোনো প্রতিদানের আশায় দেশের অর্থনীতি ও সমাজে অবদান রাখেন না। তাঁরা এই অবদান রাখেন দেশের প্রতি মমত্ববোধ ও দায়িত্বশীলতা থেকে। তাঁরা শুধু চান বাংলাদেশ তাঁদের আপন বলে জানুক। বাংলাদেশের মানুষ তাঁদের বুকে টেনে নিক। বাংলাদেশের অর্থনীতিকে প্রতিনিয়ত চলমান রাখা এই প্রবাসী জনগোষ্ঠী শুধু চায় প্রতিদান না হোক, অবজ্ঞা যেন না করা হয়।

 

“মিসেস গ্লোব বাংলাদেশ” বেস্ট কান্ট্রি এওয়ার্ড প্রাপ্ত জারিন তাসনিম অন্তরা বলেন, প্রবাসীরা জাতীয় সম্পদ,সরকারের উন্নয়নের মহাসড়কে বিভিন্ন প্রকল্পে প্রবাসীদের সম্পৃক্ততা চোখে পড়ার মত।আমরা বিভিন্ন সময় পত্র পত্রিকায় দেখি প্রবাসীরা বিভিন্ন ভাবে হেনস্থা হচ্ছেন,কারণে অকারনে শুনছেন বিভিন্ন জনের কটু কথা এর একটা প্রতিকার হওয়ার এখনই সময়। সম্প্রতি অজ্ঞাত এক নারী যার পরিচয় পাওয়া যায়নি যিনি প্রবাসীদের অশালীন ভাষায় গালমন্দ করেন এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রবাসীদের কষ্টার্জিত টাকায় দেশের অর্থনীতি সচল থাকে তাদের সম্মান টুকু যেন ক্ষুণ্ন না হয় সে ব্যাপারে সরকার ও সম্পৃক্ত সকলের সহযোগিতা দরকার। আমি ওই নারীকে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জন্য সরকার প্রশাসনকে অনুরোধ করছি,তিনি আরো বলেন, প্রবাসীরা আমার আপনজন আমার জন্য সকলে দুয়া করবেন। ঝালকাঠির মেয়ে “জারিন তাসনিম অন্তরা” মিসেস গ্লোবের ২৩তম আসরে প্রথমবারের মতো চিনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। বর্তমানে তিনি দেশের বিখ্যাত বসুন্ধরা গ্রূপ ও ইয়ামাহা’র স্যুট নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

শেয়ার করুন...

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

%d bloggers like this: