ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন এক প্রেমিকা। শুক্রবার সকাল থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন তিনি। পরে স্থানীয় মাতুব্বরদের সালিসের মাধ্যমে রাতে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান অনশনরত প্রেমিকা।

জানা যায়, উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের জগন্নাথদি গ্রামের শুনীল মিত্রের ছেলে সুমন মিত্রের (২৮) সঙ্গে ওই নারীর দীর্ঘ ১ বছরের সম্পর্ক রয়েছে। এর মধ্যে সুমন মিত্রের বিয়ের জন্য মেয়ে দেখছে। এমন খবর পেয়ে শুক্রবার সকাল থেকে প্রেমিক সুমন মিত্রের বাড়িতে গিয়ে প্রেমিকা চৈতী বিশ্বাস (২০) অবস্থান শুরু করেন।

চৈতী বিশ্বাস জানান, সুমন মিত্রের সাথে তার প্রায় বছর খানেক ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলছে। প্রেমের ওই সম্পর্কে বিয়ের আশ্বাসে সুমন মিত্রের সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। সুমনের পরিবার তাদের সম্পর্কের বিষয়টি আগে থেকেই জানতো।

তিনি আরও জানান, আমার আগে অন্যত্র বিয়ে হয়েছিল, যেখান থেকে বিয়ের প্রলোভনে ১৫ দিনের মাথায় আমার প্রাক্তন স্বামীকে তালাক দেয়ায়। তালাক দেয়ার পর থেকে আমাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করছে সুমন। অবস্থান কর্মসূচির পর স্থানীয় মাতুব্বররা বিয়ের আয়োজন করেছেন আজ শুক্রবার।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ূম মোল্যা বলেন, ওই মেয়েটি সকাল থেকে বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান করছে বলে জানতে পারি। পরে মেয়ের সাথে কথা বলে জানতে পারি তার সাথে ছেলেটার শারিরীক সম্পর্ক হয়েছে। এছাড়া এ সংক্রান্ত বেশ কিছু ডকুমেন্টস আমাদের দিয়েছেন মেয়েটি। পরে স্থানীয় মাতুব্বররা বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্ধ্যায় বিয়ের আয়োজন করা হয়।

ফরিদপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা-সালথা সার্কেল) মো. সুমিনুর রহমান বলেন, এ খবর এখনও জানতে পারেননি তিনি। তবে এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x