স্টাফ রিপোর্টার : আজ শনিবার (৩০ এপ্রিল) মুজিব শতবর্ষ এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র ১০২তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে এক বিশেষ্ আলোচনা সভার ২৭০তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন এশিয়ান টেলিভিশনের সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রলি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন শিক্ষা ক্যাডারের সহযোগী অধ্যাপক ও গবেষক আবু সালেক খান। সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক ড. জেবউননেছা এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ এর বঙ্গবন্ধু ইনস্টিটিউট অব লিবারেশন ওয়ার এন্ড বাংলাদেশ স্টাডিজ এর অধীনে পিএইচডি গবেষণারত প্রশান্ত কুমার সরকার।

সভাপতির বক্তৃতায় ড. কলিমউল্লাহ বলেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃতজ্ঞতার পাশে আবদ্ধ করেছেন পৃথিবীর সকল শোষিত মানুষকে।বক্তব্যের শুরুতে ড. কলিমউল্লাহ তার আত্মীয় প্রয়াত সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের প্রয়াণে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। প্রয়াত অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতকে একজন বহুমাত্রিক ব্যক্তিত্ব উল্লেখ করে ড. কলিমউল্লাহ আরো বলেন, আবুল মাল আবদুল মুহিত অফুরন্ত জীবনী শক্তির অধিকারী এক প্রাণবন্ত মানুষ ছিলেন। সদাহাস্যোজ্জ্বল কর্মযোগী, জ্ঞানী এই মানুষটির স্পষ্টতা, সরলতা ও সাহসিকতা জাতি চিরকৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে।

বঙ্গবন্ধু গবেষক ড. জেবউননেছা শেখ জামালের বর্ণাঢ্য সামরিক জীবন এবং শিক্ষা জীবন সম্পর্কে অজানা তথ্য উপস্থাপন করে বলেন , বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যদেরকে ঘিরে রচিত ইতিহাসে এখনো যেসকল বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে আছে সেগুলো সংশোধনের তাগিদ দেন। প্রশান্ত কুমার সরকার বলেন,বঙ্গবন্ধু সমতাভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণ করতে চেয়েছিলেন। গবেষক আবু সালেক খান বলেন,সরলতা, সততা ও সত্যকথনে এক জীবন্ত কিংবদন্তির নাম আবুল মাল আব্দুল মুহিত।ইতিহাস-ঐতিহ্য সচেতন আলোকিত গুণীজন একজন ন্যায়নিষ্ঠ, সজ্জন চিৎপ্রকর্ষবিদ ছিলেন তিনি।

দিপু সিদ্দিকী বলেন,একজন ভাষা সংগ্রামী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আবুল মাল আবদুল মুহিত বাংলাদেশের ইতিহাসের অংশ। দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও আর্ন্তজাতিক অর্থনৈতিক ফোরামে বাংলাদেশের সম্পৃক্তি ও সমৃদ্ধিতে তিনি এক রূপান্তরের নায়ক। সভায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক ড. জেবউননেছার নানীর মৃত্যুতেও শোক প্রকাশ করা হয় এবং মরহুমার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করা হয়। সভাটি সঞ্চালনা করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x