মোঃরেজাউল করিম ,স্টাফ রিপোর্টারঃ

প্রতিষ্ঠার ৫৪ বছরেও স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়নি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। অত্যাধুনিক সব যন্ত্রপাতি থাকলেও অধিকাংশই বিকল।

ভোগান্তির অপর নাম শয্যা সংকট।ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালেও সমস্যার সমাধান না পাওয়ার আক্ষেপ খোদ হাসপাতালের পরিচালকের।

শয্যা সংকটের কারণে মেঝেতেই চলছে চিকিৎসা সেবা।সম্প্রতি সরজমিনে গিয়ে এমন দুর্ভোগের চিত্র দেখা গেছে প্রতিটা ওয়ার্ডে|৫৪ বছর আগে নির্মাণ করা হাসপাতালটির ভবনের অবস্থাও জরাজীর্ণ।খসে পড়ছে পলেস্তারা।

সঙ্গে পানি সংকট ভোগান্তি আরও বাড়িয়েছে দিয়েছে।রোগীদের সঙ্গে খারাপ আচরণেরও অভিযোগ রয়েছে নার্সসহ হাসপাতালের কর্মচারীদের বিরুদ্ধে।

দীর্ঘদিন ধরে বিকল এম আর আই, সিটিস্ক্যান সহ গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্র। তাই স্বাস্থ্যের যেকোনো পরীক্ষায় বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার গুলোই ভরসা রোগীদের।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা.এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, প্যাথলজি বিভাগে এম আর আই ও সিটিস্ক্যান হচ্ছে না। এম আর আই মেশিন নষ্ট।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. এইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘অনেক সময় ইমার্জেন্সি মোকাবিলা করতে পারি না।

তবে প্যাথলজি বিভাগে আমরা দুই শিফট চালু করেছি।’ সংকটের বিষয় গুলো ঊর্ধ্বতন মহলে জানিয়েও কোনো সমাধান মিলছে না বলেও আক্ষেপ করেন হাসপাতাল পরিচালক।

৫০০ শয্যার হাসপাতালটিতে দৈনিক গড়ে ২ হাজার রোগী ভর্তি থাকেন। আর প্রতিদিন বহি র্বিভাগে সেবা নেন তিন হাজার রোগী|অতি দ্রুত এই সংকট কাটিয়ে সেবার মান উন্নীত করার দাবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সহ রোগী এবং রোগীর সঙ্গে থাকা স্বজনদের|

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x