শীঘ্রই বাংলাদেশসহ তিন দেশ থেকে কর্মী নিয়োগের সমস্যা সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার মানব সম্পদমন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান। মঙ্গলবার (৭ জুন) তাপাহ-এ টেলেন্টকর্পের কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে বি-৪০ নিম্ন-আয়ের পরিবারের শিক্ষার্থীদের মাঝে ১০০টি ল্যাপটপ প্রদানের সময় তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেছেন।

সারাভানান বলেছিলেন, এ পর্যন্ত বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া এবং কম্বোডিয়া থেকে বিদেশি কর্মী নিয়োগে দুই লাখ আবেদ অনলাইনে মন্ত্রণালয়ে জমা পড়েছে।

বিদেশি কর্মী নিয়োগে চূড়ান্ত প্রক্রিয়াটি পরিমার্জিত হচ্ছে এবং এতে প্রযুক্তিগত বিষয়, নিয়োগ পদ্ধতি এবং সংশ্লিষ্ট সব দেশের সংস্থা বা পক্ষের মধ্যে স্মারক স্বাক্ষর অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

এছাড়া মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় নিয়োগকর্তাদের জন্য বিদেশি কর্মী নিয়োগের বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কিছু পরিবর্তন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোয়ারেন্টিন, স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি, কোয়ার্টার, প্রশিক্ষণ, শ্রম অধিকার এবং অন্যান্য। ‘ইন্দোনেশিয়া থেকে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে জনশক্তি মন্ত্রণালয় এবং প্রতিবেশী দেশের একটি সংশ্লিষ্ট সংস্থার মধ্যে প্রক্রিয়া জড়িত।

‘বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়াও সম্পন্ন হয়েছে। শুধুমাত্র আমি চূড়ান্ত করিনি কম্বোডিয়ার সাথে মালয়েশিয়ার মুসলিম গৃহকর্মী আনার চুক্তি।উল্লেখ্য, ইন্দোনেশিয়া ছাড়াও, কম্বোডিয়ায় মুসলিম সম্প্রদায়ের বিপুল সংখ্যক গৃহকর্মী রয়েছে। যা জুলাই মাসে চূড়ান্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x