মুহাম্মদ আলী, স্টাফ রিপোর্টারঃ
বান্দরবান জেলার বান্দরবান- কেরানিহাট সড়কের সুয়ালক ইউনিয়ন পরিষদের নিকটবর্তি পার্বত্য জেলা পরিষদের টোল পয়েন্টে অতিরিক্ত টোল আদায়কে কেন্দ্র করে সড়ক অবরোধ করে সবজি পরিবহন চালকরা।

সোমবার (৪ই জুলাই ) সন্ধ্যা ৭ টায় অতিরিক্ত টোল আদায় করাকে কেন্দ্র করে টোল আদায়কারী ও সবজি পরিবহন চালকদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সবজি পরিবহনকারী ট্রাক চালকরা তাদের গাড়ি সড়কের উপর রেখে দেয় এতে প্রায় ২ কিলোমিটার সড়কে ৩ ঘন্টা দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

যানজটের ফলে ভোগান্তির সম্মুখীন হয় জেলা থেকে ছেড়ে যাওয়া দূরপাল্লার গাড়ি এবং জরুরি রোগি পরিবহনের এম্বুলেন্স।পরে ঘটনা স্থলে পুলিশ এসে রাত ১০ টায় রাস্তায় স্বাভাবিক যানচলাচল নিশ্চিত করে।

সরজমিনে দেখা যায় , ২০২২-২৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রণাধীন টোল পয়েন্ট সমূহে জেলা হতে রপ্তানীযোগ্য বিভিন্ন দ্রব্যাদির উপর নির্ধারিত হারে টোল আদায়ের তালিকা প্রনয়ন করা আছে,নিয়মানুযায়ী টোল পয়েন্ট ইজারা গ্রহিতা জেলা পরিষদ হতে প্রদত্ত নির্ধারিত তালিকা অনুযায়ি টোল আদায় করবে কিন্তু বাস্তবতায় দেখা যায় এর ভিন্ন রূপ।

অবরোধকারী সবজি ড্রাইভারদের এক প্রতিনিধি মোঃ হানিফ এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, বিগত সময়ে প্রতিটি গাড়িতে নির্ধারিত টোলের বাইরে ৫০০-১০০০ টাকা বাড়তি টোল তারা দিয়ে আসছে বিষয়টি কথিত থাকলেও এর বিপরীতে দেয়া হয়না মূল চালন বা রশিদ ,বর্তমানে যারা টোল পয়েন্টের দায়িত্বে আছেন তারা অনেক সময় বাড়তি টাকার জন্য হেনস্থাও করে।

এদিকে টোল পয়েন্টের দায়িত্বে থাকা কর্মচারী আতিক জানায় সে এ বিষয়ে কিছুই বলতে পারবে না এটা মালিক কর্তৃপক্ষ জানবে।

উদ্বুত পরিস্থিতিতে টোল পয়েন্ট ইজারাগ্রহিতা কর্তৃপক্ষের কাউকেই ঘটনাস্থলে পাওয়া যায় নি,এবং তাদের মোবাইলে কল করলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয় নি।

এ বিষয়ে পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা(প্রশাসন) মো.আব্দুল্লা আল মামুন বলেন, জেলা পরিষদের প্রদত্ত টোল চার্টের বাইরে বাড়তি টোল আদায়কে কেন্দ্র করে সড়ক অবরোধের বিষয়টি আমি শুনেছি,আমাদের কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে আমরা খুব দ্রুত নিরপক্ষ একটি তদন্ত টিম গঠন করে এ বিষয়ে ব্যাবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x