বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করেছে সৌদি আরব। কয়েক কিলোমিটার জুড়ে ৫০০ মিটার (১৬৪০ ফুট) উচ্চতার জোড়া ভবন নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছে দেশটি।

সৌদি আরবের জনবিরল প্রদেশ তাবুকের বুকে নিওম নামের একটি মেগাসিটি গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিলেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। ৫০০ বিলিয়ন ডলারের সেই উন্নয়ন প্রকল্পেই এই টুইন টাওয়ার নির্মাণের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। ৫০০ মিটার উচ্চতার এই টুইন টাওয়ারের ভিত্তি গড়ে তোলা হবে কয়েক কিলোমিটার জায়গা নিয়ে।

প্রস্তাবিত পরিকল্পনা অনুসারে, এই টুইন টাওয়ারে আবাসিক, ব্যবসায় এবং অন্যান্য সকল সুবিধা থাকবে। এরই মধ্যে প্রকৌশলীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিল্ডিংটির নকশা নিয়ে কাজ করতে।

এর আগে, ২০১৭ সালে নিওম মেগাসিটি প্রকল্পের ঘোষণা দেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। তবে মাঝে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে প্রকল্পের কাজ অনেকটা স্থবির হয়ে গিয়েছিল। এই প্রকল্পটি সৌদি পেট্রো–ডলারের পাশাপাশি দেশটিতে বিপুল বিদেশি বিনিয়োগও এনেছে।

নিওম প্রকল্পের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাদমি আল–নাসর এই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেছেন, ‘আমরা প্রস্তুত হয়েই এই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সামনে আনব’। তবে, আল–নাসর জানিয়েছেন, এখন বিল্ডিংটির যে উচ্চতা ধারণা করা হচ্ছে তার চেয়ে খানিকটা কমবেশি হতে পারে।

নিওমের সামগ্রিক পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক সংস্থা মরফোসিস। মরফোসিসের মালিক টমাস মেইন—যিনি যুক্তরাষ্ট্রের আর্কিটেকচার জগতে ‘দ্য ব্যাড বয়’ নামে পরিচিত, তিনিও এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে আগ্রহী নন।

এর আগে, সৌদি প্রিন্স আলওয়ালিদ বিন তালাল বিশ্বের সর্বোচ্চ ভবন দুবাইয়ের বুর্জ খলিফার চেয়েও উঁচু ভবন নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছিলেন। কাজ শুরুও হয়েছিল। তবে সেই বিল্ডিংটির কাজ মাঝ পথে এসে থেমে যায়। ফলে অসমাপ্ত থাকে সেই বিল্ডিং। প্রসঙ্গত উল্লেখ, বিশ্বের সর্বোচ্চ ভবন বুর্জ খলিফার উচ্চতা প্রায় ৮৩০ মিটার।

নিওম প্রকল্পকে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ‘মস্তিষ্কপ্রসূত সন্তান’ বলে উল্লেখ করা হয় দেশটিতে। ২০১৭ সালে তাবুক প্রদেশের এই জনবিরল এলাকায় শহর নির্মাণের ঘোষণা দেন সৌদি যুবরাজ।

যে এলাকায় শহরটি নির্মাণ করা হচ্ছে, তার উত্তরদিকে লোহিত সাগর, আর পূর্বদিকে আকাবা উপসাগরের উপকূল। মোহাম্মদ বিন সালমানের পরিকল্পনা অনুযায়ী, নিয়ম হবে একই সঙ্গে প্রযুক্তিনির্ভর আধুনিক স্মার্ট সিটি ও দেশি-বিদেশি পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x