প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, বৈদেশিক কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে ভাষার দক্ষতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশী কর্মীর চাহিদা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা দক্ষ কর্মীর ব্যাপারে যেমন গুরুত্ব দিচ্ছি, তেমনি ভাষার দক্ষতার ওপরও জোর দিচ্ছি। আশা করছি, এসব বিষয়ে যদি আমরা ভালো অবস্থান তৈরি করতে পারি, তাহলে আমাদের রেমিটেন্স বাড়বে।’ ইমরান আহমদ আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইস্কাটনস্থ প্রবাসী কল্যাণ ভবনে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড আয়োজিত প্রবাসী কর্মীদের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন।
প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, সরকার সবসময় প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণে নিয়োজিত আছে। প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা যাতে ভালোভাবে পড়াশুনা করতে পারে এবং উচ্চ শিক্ষা লাভে কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না হয়, সেজন্য এই শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও প্রবাসী সকল কর্মীর পরিবারের সদস্যরা যাতে আত্মমর্যাদার সাথে সমাজে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে পাওে, সরকার সে চেষ্টাও করছে।
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান বক্তৃতা করেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘পদ্মা সেতু আমাদের স্বকীয়তা বিনির্মাণে একটি বড় মাইলফলক। পদ্মা সেতু পৃথিবীর অন্যতম কঠিন স্ট্রাকচার। এই সেতু নির্মাণ নিয়ে বাংলাদেশ ছাড়াও পৃথিবীর কোথাও কোন সমালোচনা নেই।’ তিনি কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশে যেতে আগ্রহীদের জেনে বুঝে সচেতন হয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বিদেশে যাওয়ার আহবান জানান। খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বৃত্তি প্রাপ্তদের দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার জন্যও শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দেন।
বক্তৃতা-পর্ব শেষে অতিথিরা প্রবাসীদের দশজন মেধাবী সন্তানের হাতে বৃত্তির চেক তুলে দেন। উল্লেখ্য, এ অনুষ্ঠানে মোট ১শ’ ৬২ জনকে বৃত্তির চেক প্রদান করা হয়।বাসস

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x