নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও খাদ্যপণ্যের দাম বেড়েছে। বাংলাদেশে কিন্তু কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়েছে, তবে ইউরোপের চেয়ে অনেক কম বেড়েছে। দাম নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকার নানামুখী পদক্ষেপও নিচ্ছে।

ড. হাছান বলেন, দেশে খাদ্যপণ্যের কোনো সংকট নেই। কৃত্রিমভাবে খাদ্যপণ্যের সংকট তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে। বিএনপি মাঠে কর্মসূচি দিয়েছে দ্রব্যমূল্যের বিষয়ে। তারা (বিএনপি) অসাধু ব্যবসায়ীদের বাতাস দিচ্ছে যেন পণ্যের মূল্যটা বাড়ায়। দেশে যেন কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি হয়।

মন্ত্রী বলেন, অসাধু ব্যবসায়ীরা যেভাবে পণ্যমূল্য বাড়িয়ে দেশবিরোধী কাজ করছে, তেমনই বিএনপিও দেশবিরোধী কাজ করছে। বিএনপি আসন্ন রমজানকে সামনে রেখে অসাধু ব্যবসায়ীদের পরামর্শ দিচ্ছে পণ্যের মূল্য বাড়ানোর জন্য। আমরা নজর রাখছি। সরকার কিন্তু এই অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে কঠোর ব্যবস্থা নেবে।

বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টায় চট্টগ্রাম নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনাসিয়াম মাঠে চট্টগ্রাম বইমেলার সমাপনী, মহান একুশে স্মারক সম্মাননা পদক ও সাহিত্য পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ বক্তব্য রাখেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে গেছে, আমরা যেহেতু এ পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি তাই আমরা অনেকেই অনুভব করতে পারি না। যে মানুষটি ১২ বছর আগে বিদেশ গেছে মাঝখানে দেশে আসেনি, সে যখন বাংলাদেশে আসে তখন সে পরিবর্তনটা লক্ষ করে।

তিনি বলেন, গত মাসের শেষ সপ্তাহে আমি ভারতের পূর্বাঞ্চলে কয়েকটি রাজ্যে গিয়েছিলাম। বৈঠকে আসামের মুখ্যমন্ত্রী বললেন, তিনি প্রতিবছর ঢাকায় আসেন ঢাকেশ্বরী মন্দিরে। প্রতি বছরই তিনি পরিবর্তন লক্ষ করেছেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এটি আমাদের প্রচণ্ডভাবে উৎসাহিত করছে।

হাছান মাহমুদ বলেন, সমগ্র পৃথিবী আজকে বাংলাদেশের বদলে যাওয়ার প্রশংসা করছে, কিন্তু বাংলাদেশের কিছু মানুষ প্রশংসা করতে পারে না। বাংলাদেশে একটি দল আছে বিএনপি এবং তাদের মিত্ররা এ উন্নয়ন দেখে না। মূলত তারা দেখেও না দেখার ভান করে। মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্য আজকে তারা নানা কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নেমেছে। কর্মসূচির মূল বিষয় হচ্ছে দ্রব্যমূল্য।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে ১৯ দিনব্যাপী বইমেলার সমাপনীতে মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. মুমিনুর রহমান। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বইমেলা উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক কাউন্সিলর ড. নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x