রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে ভেজাল গুড় তৈরীর কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে। যেখানে মানুষের শরীরের জন্য ক্ষতিকর উপকরণ দিয়ে আখের গুড় তৈরী করা হচ্ছিল। ওই দুইটি কারখানায় অভিযান চালিয়ে ৩ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। একই সঙ্গে ৮৫৫ কেজি ভেজাল গুড় নষ্ট করে ফেলা হয়েছে।

২১ সেপ্টম্বর বুধবার সকালে রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার আড়ানি এলাকায় র‌্যাবের সহযোগিতায় এ অভিযান চালায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

দপ্তরটি রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়েল সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ জানান, বিভিন্ন খাদ্যপণ্য সেবার মান যাচাইয়ে প্রতিদিন বাজার তদারকি অভিযান চালিয়ে আসছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এর অংশ হিসেবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাঘা উপজেলার আড়ানি এলাকার খর্দো বাউসা ও পাঁচপাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলী ও দুলাল উদ্দিন বাদলের বাড়ীতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় হাতে নাতে ভেজার গুল তৈরী ধরা হয়। সেখানে চিনি, চুন, ফিটকিরি, ডালডা ও রং ব্যবহার করে আখের গুড় তৈরি করা হচ্ছিল। যা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর।

তিনি আরো বলেন, ক্ষতিকর উপকরণ দিয়ে গুড় তৈরী করার অপরাধে সেকেন্দার আলীকে ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। এর আগেও একই অপরাধে সেকেন্দারের দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয়েছিল। সে পুনরায় একই অপরাধ করায় আইন অনুযায়ী সাজার মাত্রা দ্বিগুন করে ৩ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এছাড়াও একই উপকরণে গুড় তৈরী করায় দুলাল উদ্দিনকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভোক্তা অধিকারের অভিযানে দুলাল উদ্দিন বাড়ী থেকে পালিয়ে গেলে তাকে ডেকে জরিমানা ও সতর্ক করা হয়। পরে জব্দ ৮৫৫ কেজি ভেজাল গুড়গুলে নষ্ট করা হয়েছে বলেও জানান হাসান-আল-মারুফ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x