লক্ষ্মীপুরে রুবেল হোসেন নামে প্রবাস (সৌদি) ফেরত যুবকের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়েছে। ৮/১০ জনের মুখোশধারী দল তাকে গুলি করে ও কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে।

শনিবার (৩০ জুলাই) রাত ১১টার দিকে তাকে গুলিবিদ্ধ মুমূর্ষু অবস্থায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিক্যালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এর আগে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনার কারণ জানাতে পারেনি কেউ।

পুলিশ ও আহতের পরিবার জানায়, রাতে রুবেল হোসেন নিজ বাড়ির পাশে কুসুম আলীর চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এসময় মুখোশধারীরা তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। রুবেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে তার মৃত্যু নিশ্চিত করতে কয়েকটি গুলি করে। এরমধ্যে একটি গুলি তার বাম পায়ে বিদ্ধ হয়। দোকানের পাশে রাখা তার মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায় মুখোশধারীরা। স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করে।

স্থানীয় এলাকাবাসী মাসুদ, হামলার শিকার রুবেলের মা জাহানারা বেগম ও বোন রিয়া আক্তার জানান, কারো সাথে কোন শত্রুতা নেই তাদের। তবুও নির্দোষ মানুষটির উপর মুখোশধারীরা কেন এ হামলা চালিয়েছে জানেনা তারা। এসময় তার মোটরসাইকেলটিও নিয়ে গেছে। এর বিচার দাবী করেন স্বজনরা।

এ ব্যাপারে সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আরমান হোসেন জানান, রুবেলের পায়ে শর্টগানের গুলির চিহ্ন রয়েছে। শরীরের বিভিন্নস্থানে কোপের দাগ রয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থা দেখে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ্ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কারা কি কারণে হামলা করেছে তা জানা যায়নি। ঘটনার তদন্ত চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x