রাম বসাক, শাহজাদপুর, সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়নের রতনকান্দি দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মজিদা খাতুন (২৮) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছেন স্বজনরা। নিহত গৃহবধূ মজিদা খাতুন রতনকান্দি দক্ষিণ পাড়া মহল্লার ফজলুল হকের ২য় স্ত্রী।
এদিকে খবর পেয়ে শাহজাদপুর থানা পুলিশ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করেন এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী ফজলুল হককে থানায় নিয়ে আসেন।
সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী ও নিহতের চাচাতো বোন রুমানা এবং সাজনী জানান, ফজলুল হকের নির্যাতনের কারনে প্রথম স্ত্রী চলে যায়। এরপর এতিম মজিদা খাতুনের সাথে দ্বিতীয় বিয়ে হয় ফজলুল হকের। বিয়ের পর থেকেই দরিদ্র মজিদাকে ঠুনকো অজুহাতে মারধর করে আসছে স্বামী। গতকাল মঙ্গলবার রাতেও স্বামী ও শ্বশুর রফিকুল মহুরি ব্যাপক মারধর করে, যার চিহ্ন হলো কান ও মাথা রক্তাক্ত এবং হাতের আঙুল কাটা। আর এই মারপিটের কারণে মজিদা মারা গেলে পরিকল্পিত ভাবে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার নাটক সাজাচ্ছে।
এদিকে নিহিত মজিদা খাতুনের শ্বশুর রফিকুল মহুরি সব অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, তার ছেলের স্ত্রী মজিদা আত্মহত্যা করেছে। অযথা তার স্বজনরা হত্যার অভিযোগ তুলছে।
এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে থাকা শাহজাদপুর থানার এসআই আনোয়ারুল জানান, নিহতের শরীরে যে চিহ্ন আছে তার সব নোট নেওয়া হয়েছে।
শাহজাদপুর থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম মৃধা জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। আর এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x