বাংলাদেশের সংবিধান নারীদের ন্যায্য ও সমঅধিকার নিশ্চিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

তিনি আশা প্রকাশ করে বলেছেন, এক সময় বিচার বিভাগকে নারীরাই নেতৃত্ব দেবেন।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্টের কনফারেন্স কক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব বলেন তিনি।

‘উচ্চ আদালতে সরকারি আইনি সেবার মান বৃদ্ধিতে বিজ্ঞ নারী আইনজীবীদের ভূমিকা ও টেকসই আগামীর জন্য, জেন্ডার সমতাই আজ অগ্রগণ্য’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটি ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘যুগ-যুগান্তব্যাপী নারীদের ওপর নিপীড়ন ও বঞ্চনা নিরসন এবং নারী-পুরুষের মধ্যে সমতা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বাংলাদেশের সংবিধানে নারীর ন্যায্য অধিকার এবং নারীপুরুষের সমঅধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।’ প্রধান বিচারপতি তার বক্তব্যে আদালত প্রাঙ্গণে আগত আইনগত সহায়তা প্রত্যাশী, বিচারপ্রার্থী বা কর্মজীবী নারীর জন্য নারীবান্ধব পরিবেশ তৈরি এবং অবকাঠামোগত উন্নয়নে সার্বক্ষণিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির সভাপতি ও হাইকোর্টের বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন আপিল বিভাগের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

এ ছাড়া সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. বজলুর রহমান, সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির সদস্য সচিব অবন্তী নুরুল, ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের (এলআরএফ) সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইয়াছিন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x