ঢালিউডের আদর্শ দম্পতি হিসেবে সমাদৃত ওমর সানি ও মৌসুমী। বিনোদন জগতের মানুষের সংসার না টেকার ধারণাকে ভুল প্রমাণ করে দুই যুগ ধরে এক ছিলেন তারা। গুঞ্জন উঠেছে তাদের সংসারেও নাকি ফাটল ধরেছে। কিছুদিন ধরে আলাদা থাকছেন মৌসুমী ও ওমর সানী। প্রশ্ন উঠছে, সত্যিই এবার আলাদা হয়ে যাচ্ছেন তারা?

সোশ্যাল মিডিয়ায় এ ঘটনা নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা ও বিতর্ক। দুই তারকার কাছের মানুষ ও ভক্ত-অনুরাগীরাও হতবাক হয়েছেন। এবার ওমর সানী নিজেই জানালেন, মৌসুমীর সঙ্গে তার কথাও বন্ধ রয়েছে। জায়েদ খান ইস্যুতে তাদের মধ্যে কিছুটা দূরত্ব তৈরি হয়ে গেছে।

তবে এখনই নিরাশ করছেন না ওমর সানী। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছেন, আমি এখনো আমার অভিযোগে অটল আছি। জায়েদের বিষয়ে যা বলেছি সব সত্যি। আমার আর আমার ছেলের কাছে তার (জায়েদ খান) বিরুদ্ধে যথেষ্ট প্রমাণ আছে। আমি চাই না ২৭ বছরে এসে আমার ফ্যামিলির মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হোক। বাইরের মানুষ যেভাবে আমার সংসার ভাঙার চেষ্টা করছে।

মৌসুমীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য না করার অনুরোধ করে ওমর সানী বলেন, আমার গার্ডিয়ান আমার ছেলে-মেয়ে। বাকি কথা তাদের কাছ শুনে নেবেন। তবে এসব দ্বন্দ্বের অবসান চান সিনিয়র শিল্পীরা। ব্যক্তিগত বিষয়গুলো থাকুক আড়ালে। সম্মান নিয়ে বাঁচুক ইন্ডাস্ট্রির সব শিল্পী। এমন আশাই করছেন অনেকে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১০ জুন) খল অভিনেতা ডিপজলের বড় ছেলের বিবাহোত্তর সংবর্ধনায় অংশ নেন ওমর সানী। সেখানে তিনি জায়েদ খানকে চড় মেরেছেন বলে দাবি করেছেন। বিপরীতে জায়েদ তাকে পিস্তল ঠেকিয়ে হুমকি দিয়েছে। এরপর শিল্পী সমিতিতে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন সানী। তাতে বলেছেন, জায়েদ খান তার ও মৌসুমীর সংসার ভাঙার চেষ্টা করছে।

যদিও ওমর সানীর অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন জায়েদ খান। এমনকি চড়-পিস্তলের ঘটনাও সত্য নয় বলে তার দাবি।

এরপর সোমবার (১২ জুন) মৌসুমী নিজেও মুখ খুলেছেন। তিনি স্বামী ওমর সানী নয়, বরং জায়েদ খানের পক্ষ নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। ফলে নেটিজেনদের মনে তাদের সংসার ভাঙার শঙ্কা আরও প্রবল হয়েছে। তবুও ভক্তদের প্রত্যাশা, সাময়িক অভিমান-ভুল বোঝাবুঝি ভুলে পুনরায় সুন্দর-শান্তিপূর্ণ সংসারে ফিরবেন এই তারকা দম্পতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x