সুপ্রিম কোর্টে কোনো প্রকার দুর্নীতি অনিয়মের ন্যূনতম উপস্থিতি বরদাশত করবেন না বলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হুঁশিয়ার করেছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

বুধবার (১৩ এপ্রিল) সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সুপ্রিম কোর্টে সরকারি আইন সহায়তা কার্যক্রমের মানোন্নয়নের লক্ষ্যে বেঞ্চ অফিসার, বেঞ্চ রিডার ও সেকশন সুপারদের নিয়ে সচেতনতামূলক এ কর্মশালার আয়োজন করে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটি ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথসহ অনেকে।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, সুপ্রিম কোর্টের সমস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী অদম্য উৎসাহ নিয়ে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু কতিপয় বেঞ্চ অফিসার, বেঞ্চ রিডার এবং বিভিন্ন সেকশনের সুপারসহ অসাধু কিছু কর্মকর্তার জন্য তাদের সমস্ত প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে।
আমি তাদের হুঁশিয়ার করে দিচ্ছি, এ দুর্দশাগ্রস্থ মানুষের কাছ থেকে কেউ সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করলে কোনোভাবেই বরদাশত করব না। আমি এরই মধ্যে একজন অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার, ডেপুটি রেজিস্ট্রারের মাধ্যমে কমিটি করে দিয়েছি, তাদের বলেছি, কোথাও কোনো অনিয়ম বা সাধারণ মানুষকে কেউ হয়রানি করছে কিনা খেয়াল রাখতে।

সুপ্রিম কোর্টের সমস্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীর উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বলে দিতে চাই, এ পবিত্র আদালত দেশের মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল। এখানে কোনো প্রকার দুর্নীতি অনিয়মের ন্যূনতম উপস্থিতি বরদাশত করব না। এখানের অনিয়ম দুর্নীতি নির্মুল করতে যে কোনো পদক্ষেপ নিতে কুণ্ঠাবোধ করব না। অনিয়ম বা দুর্নীতি পরিলক্ষিত হলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন,একজন সেকশন সুপার বা একজন বেঞ্চ অফিসারের জন্য পুরো বেঞ্চের বদনাম হয়ে যায়। এটা কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না। আদালত প্রাঙ্গণে সমবেত বিচার প্রার্থী সাধারণ মানুষের কাছ থেকে আপনার আমার বেতন হচ্ছে। অসহায় বা কোনো বিচার প্রার্থীর বিষয়ে আপনাদের সামনে এলে ধরে নেবেন আপনাদের বেতন তাদের ট্যাক্সের টাকায় হচ্ছে। আমি অনুরোধ করব, অন্যরা যা-ই করুক, আপনারা অন্তত ন্যায্য আচরণটুকু তাদের সঙ্গে করেন।
ভালো কাজটা নিজেকেই দিয়ে শুরু করুন। মনে রাখবেন ভালো মন্দ কাজের জন্য একদিন কিন্তু আল্লাহর কাছে জবাবদিহি করতে হবে।

আইনজীবীদের উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, আদালতের পবিত্র অঙ্গণ থেকে প্রতারক, অসাধু সিন্ডিকেট উচ্ছেদ করে সবাই সক্রিয় ভূমিকা পালন করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x