পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পদোন্নতির কোন ব্যবস্থা না থাকায় শর্ত পূরণের পরদিন হতে সকল কর্মকর্তা পদে (ব্লক পদ সহ) চাকুরী জীবনে ৪ বার পদোন্নয়ন, গ্রেড সমতাকরণ;, কর্মকর্তাদের অবসর গ্রহণের বয়সসীমা ৬৫ বৎসরে উন্নীতকরণের দাবি জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন (বাআবিঅফ) এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের অফিসার্স এসোসিয়েশনের এক যৌথ সভা থেকে এ দাবি জানানো হয়। গত বৃহস্পতিবার (৯ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যান্য দাবিগুলো হলো সকল দপ্তর প্রধানসহ নন টিচিং পদে কর্মকর্তাদের স্থায়ী নিয়োগ বাধ্যতামূলক করা, কর্মকর্তা স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কমিটিতে কর্মকর্তা সমিতির প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত করা; উচ্চ শিক্ষাছুটি ও লিয়েনের বিষয় স্পষ্ট করণ; জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে মোট ২য় গ্রেডধারী কর্মকর্তার ২৫ শতাংশ কর্মকর্তাকে ১ম গ্রেড প্রদান; কর্মরত কর্মকর্তাগণ বর্তমানে যে পদে কর্মরত আছেন ঐ পদের পরবর্তী পদে নিয়োগ এবং পদোন্নয়নের ক্ষেত্রে আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রচলিত নিয়ম অনুসরণ; দপ্তর প্রধানদের প্রাধিকার অনুযায়ী সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা।

সভা শেষে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ১ ঘন্টার মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয় এবং ১৯ জুন সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে সকাল ১১ টা হতে বেলা ১২ টা পর্যন্ত ১ ঘন্টার মানববন্ধন কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশননের সভাপতি মোঃ আমিরুল ইসলাম। সঞ্চালনায় করেন মহাসচিব মীর মোঃ মোর্শেদুর রহমান ।

এতে ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সভাপতি মাভাবিপ্রবি মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম মজনু, ফেডারেশন সহ-সভাপতি প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম, ফেডারেশন সহ-সভাপতি ও সধারণ সম্পাদক চবি মোহাম্মদ হামিদ হাসান নোমানী, ফেডারেশন সহ-সভাপতি ও সভাপতি বাকৃবি মোঃ খাইরুল আলম (নান্নু), ফেডারেশন সহ-সভাপতি ও সভাপতি শাবিপ্রবি এম তাজিম উদ্দিন, ফেডারেশন যুগ্ম-মহাসচিব মোঃ রফিকুল ইসলাম, যুগ্ম-মহাসচিব মোঃ আলতাফ হোসেন, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সভাপতি নোবিপ্রবি সাখাওয়াত হোসেন, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিকৃবি ডা. ফখর উদ্দিন, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সধারণ সম্পাদক চমেবি এ এম শাহাদাত হোছাইন জুয়েল, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সধারণ সম্পাদক ডুয়েট মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন মোল্লা, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সধারণ সম্পাদক বাকৃবি মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদ, ফেডারেশন সাংগঠনিক সম্পাদক ও আহ্বায়ক জাবি অরুন কুমার বালা, ফেডারেশন দপ্তর সম্পাদক ও সধারণ সম্পাদক পবিপ্রবি মোঃ জসিম উদ্দিন বাদল, ফেডারেশন ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ও আহ্বায়ক বিএসএমএমইউ সঞ্জীব রায়, সধারণ সম্পাদক মাভবিপ্রবি ড. ইকবাল বাহার বিদ্যুৎ, দপ্তর সম্পাদক মাভাবিপ্রবি আজাদ খান ভাসানী, সভাপতি কুবি আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক কুবি মো: জাকির হোসেন সহ বিভিন্ন পবিলিক বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দাবিসমূহ অভিন্ন নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত করে বাস্তবায়িত হলে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের কার্যক্রম আরও বেগবান হবে বলে বক্তারা আশাবাদ প্রকাশ করেন। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের কর্মকর্তাগণের দীর্ঘদিনের পেশাগত সমস্যাসমূহ সমাধান না হলে, বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন(বিআবিঅফ)- বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করবে মর্মে সিদ্বান্ত গৃহীত হয়।

এর আগে ৮ জুন ফেডারেশন নেতৃবৃন্দ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন(ইউজিসি)-এর চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম এবং ইউজিসি সদস্য সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ আবু তাহের মহোদয়ের সাথে পৃথকভাবে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা এবং দাবি সংবলিত স্মারকলিপি প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x