29 November, 2020
শিরোনাম

যুবলীগে এলিটের পদ নিয়ে আওয়ামী লীগে ক্ষোভ

 15 Nov, 2020   112 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়া নিয়াজ মোর্শেদ এলিটের সদস্যপদ বাতিলের দাবি করেছে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলা আওয়ামী লীগ।

রোববার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যার পর দলটির সভাপতি জাহাঙ্গীর কবীর চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবাদলিপি মিরসরাই প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দকে হস্তান্তর করা হয়। এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- দলটির উপজেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক এম সাইফুল্লাহ দিদার ও দফতর সম্পাদক সৈয়দ আলতাফ হোসেন।No description available.

এতে বলা হয়, গত ৭ নভেম্বর আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খান নিখিল স্বাক্ষরিত যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির সদস্য তালিকায় নিয়াজ মোর্শেদ এলিট নামের এক ব্যক্তির নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যা দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দৃষ্টিগোচর হয়। যার ফলে মিরসরাই আওয়ামী রাজনীতিতে ক্ষোভ ও হতাশার জন্ম হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় রাজনীতিতে এক ধরণের বিশৃঙ্খলাও দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ দাবি করেছে, নিয়াজ মোর্শেদ এলিট বিএনপি অধ্যুষিত পরিবারের সন্তান। তার বাবা বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট। এছাড়া সদস্য যুবলীগের সদস্য পদে পদায়ন হওয়া এলিট কোন কালে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ কিংবা কৃষক লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল না। তারা সহসা আওয়ামী যুবলীগের সদস্যপদ থেকে এলিটের নাম প্রত্যাহারের দাবিও জানান।

নিয়াজ মোর্শেদ এলিট বলেন, ‘যুবলীগের মতো একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠনের জাতীয় কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করে কাজের সুযোগ দেওয়ায় আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দলের নেতাদের কাছে কৃতজ্ঞ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আমি ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত আছি। যুবলীগের ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আমি রাজনৈতিক কার্যক্রম চালিয়ে যাবো।’

নিয়াজ মোর্শেদ এলিট বড়তাকিয়া মোটরস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। জুনিয়র চেম্বার, খুলশী ক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম ব্যবসায়ী নিয়াজ মোর্শেদ এলিট চট্টগ্রামের অন্যতম আলোচিত মুখ। চট্টগ্রামের রাজনীতিতে সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে তিনি পরিচিত। চট্টগ্রাম বন্দরকেন্দ্রিক এই ব্যবসায়ী নাছিরের ঘনিষ্ঠজন হিসেবেও আলোচিত।

২০১৮ সালের মার্চে এলিট আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটিতে সদস্য পদ পান। তখন চট্টগ্রামে দলের অভ্যন্তরে নানামুখী আলোচনা তৈরি হলে তৎকালীন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন গণমাধ্যমে জানিয়েছিলেন, এলিট ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন।

চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়নের মসজিদিয়া গ্রামের বাসিন্দা শিল্পপতি মনিরুল ইসলাম ইউসুফের সন্তান এলিট। বিএনপির রাজনীতিতে জড়িত মনিরুল ইসলাম ইউসুফ ২০১৮ সালের একাদশ সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১ (মীরসরাই) আসনে দলটির প্রাথমিক মনোনয়ন পেয়েছিলেন। সেসময় ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তায় সন্তান এলিট তার বাবাকে ভোট না দেওয়ার জন্য মীরসরাইবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে আলোড়ন তুলেছিলেন। সন্তান হয়েও বাবার বিরুদ্ধে এই ভূমিকা নিয়ে প্রশংসাও পেয়েছিলেন তিনি।

মীরসরাই উপজেলায় বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত নিয়াজ মোরশেদ এলিট একাদশ সংসদ নির্বাচনে ওই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

পূর্বপশ্চিমবিডি

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ