23 January, 2021
শিরোনাম

শেষ ওভারে আরিফুলের ঝড়ে অবিশ্বাস্য জয় খুলনার

 24 Nov, 2020   40 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে মাহমুদউল্লাহ-সাকিবের জেমকন খুলনা। নাটকীয় ম্যাচে তামিমের ফরচুন বরিশালকে ৪ উইকেটে হারায় তারা। শেষ ওভারে ঝড় তুলে খুলনাকে জয় উপহার দেন আরিফুল হক।

ইনিংসের শুরু থেকে কোনোভাবেই ব্যাটে-বলে করতে পারছিলেন না আরিফুল হক। একপর্যায়ে ২০ বলে মাত্র ১১ রান ছিল তার সংগ্রহ। তখন হয়তো কেউ ভাবেওনি শেষপর্যন্ত তার ব্যাটেই ম্যাচ জিতবে জেমকন খুলনা। কিন্তু হয়েছে তাই। ম্যাচের শেষ ওভারে পাঁচ বলে চারটি ছক্কা হাঁকিয়ে খুলনাকে জয় এনে দিয়েছেন আরিফুল।

বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৫২ রানের বেশি করতে পারেনি ফরচুন বরিশাল। জবাবে খুলনার ব্যাটিংও খুব একটা ভাল ছিল না। একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলছিলেন আরিফুল। শেষ ওভারে তাদের বাকি থাকে ২২ রান। মেহেদি হাসান মিরাজের করা সেই ওভারের পাঁচ বলেই চার ছক্কার মারে ২৪ রান তুলে নেন আরিফুল।

জিরো থেকে হিরো হওয়া আরিফুল খেলেছেন ৩৪ বলে ৪৮ রানের অনবদ্য ইনিংস। প্রথম ২০ বলে ১১ থেকে শেষের ১৪ বলে আরও ৩৭ রান করেছেন ডানহাতি এ মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান। তার বীরত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়েই বরিশালকে ৪ উইকেটে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের শুভসূচনা করল তারকাখচিত দল জেমকন খুলনা।

রান তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই তাসকিন আহমেদের আগুনের বোলিংয়ের সামনে পড়ে খুলনা। দুই ওপেনার এনামুল হক বিজয় (৩ বলে ৪) ও ইমরুল কায়েস (২ বলে ০) ফিরে যান প্রথম ওভারেই। প্রথম পাওয়ার প্লে'তে আউট হন দলের দুই সিনিয়র ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (১৬ বলে ১৭) ও সাকিব আল হাসান (১৩ বলে ১৫)।

পাওয়ার প্লে'র মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে অকূল পাথারে পড়ে যায় খুলনা। সেখান থেকে পঞ্চম উইকেটে ৪৪ রান যোগ করেন আরিফুল হক ও জহুরুল ইসলাম। দলীয় ৭৮ রানের মাথায় ২৬ বলে ৩১ রান করে ফেরেন জহুরুল। পরে সাহসী ব্যাটিং করেন শামীম হোসেন। হাত খুলে খেলে ৩ চার ও ১ ছয়ের মারে ১৮ বলে করেন ২৬ রান।

তবু তা যথেষ্ট ছিল না খুলনার জয়ের জন্য। দুই ওভারে জয়ের জন্য বাকি ছিল ২৯ রান। তাসকিনের করা ওভারের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে শহীদুল ইসলামকে স্ট্রাইক দেন আরিফুল। চার বল ডট খেলে শেষ বলে ছক্কা মারেন শহীদুল। ফলে শেষ ওভারে সমীকরণ দাঁড়ায় ৬ বলে ২২ রান। হাতে আর কোন বোলার না থাকায় মেহেদি মিরাজকে বোলিংয়ে ডাকেন বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

আর এতেই হয় সর্বনাশ। মিরাজের প্রথম বলে লং অফ, দ্বিতীয় বলে স্ট্রেইট ছক্কা মেরে সমীকরণ ৪ বলে ১০ রানে নামিয়ে আনেন আরিফুল। তৃতীয় বলে এক রান হওয়ার সুযোগ থাকলেও সেটি নেননি তিনি। কেননা তার মাথায় ছিল ছক্কার মারে ম্যাচ শেষ করার পরিকল্পনা। ওভারের চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে বীরত্বের সাথেই তা করেন আরিফুল।

এর আগে, ম্যাচে টস জিতে বরিশালকে ব্যাটিংয়ে পাঠান খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। এ ম্যাচ দিয়েই দীর্ঘ ৪০৯ দিন পর মাঠে নামলেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। আর মাঠে নেমেই সাফল্য পেলেন এ ক্রিকেটার। সপ্তম ওভারে প্রথম বোলিংয়ে আসেন সাকিব। আর বোলিং করতে এসে প্রথম ওভারে দেন মাত্র ৩ রান। উইকেট পেতেও বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি সাকিবকে। নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই পান সাফল্য। সাকিবের বলে জহুরুল ইসলামকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন আফিফ হোসেন। ম্যাচে ৩ ওভার ব্যাটিং করে ১৮ রানে এক উইকেট নেন সাকিব।

ইনিংসের প্রথম বলেই অবশ্য সাফল্য পায় খুলনা। রানের খাতা খলার আগেই আউট হন ওপেনার মেহেদী হাসান। এরপর দলীয় ৩৮ রানে ফিরে যান অধিনায়ক তামিম ইকবালও। দলীয় ৪৯ রানে আফিফ আউট হওয়ায় তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বরিশাল। একপাশ আগলে রেখে চাপ সামলানর চেষ্টা চালান তরুণ ব্যাটসম্যান পারভেজ হোসেন ইমন। তবে ফিফটি হাঁকিয়েই সাজঘরে ফেরেন ইমন। ৪২ বলে ৩ চার ও চার ছক্কায় ৫১ রান করেন তিনি।

বাকিদের মধ্যে মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ১০ বলে ২১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। এছাড়া তাসকিন আহমেদ ১২ ও ইরফান শুক্কুর করেন ১১ রান।

খুলনার পক্ষে এ ম্যাচে বল হাতে চমক দেখান শহিদুল ইসলাম। চার ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে তিনি নেন ৪ উইকেট। এছাড়া শফিউল ইসলাম চার ওভারে ২৭ রানে শিকার করেন ২ উইকেট।

উল্লেখ্য, টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়েছে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী। বেক্সিমকো ঢাকার বিপক্ষে মাত্র ২ রানে জয় পেয়েছে তারা।

জেমকন খুলনা : সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), হাসান মাহমুদ, আল আমিন হোসেন, এনামুল হক বিজয়, শামিম পাটোয়ারি, আরিফুল হক, শফিউল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম অমি, শহিদুল ইসলাম।

ফরচুন বরিশাল : তামিম ইকবাল, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, কামরুল ইসলাম রাব্বি, সুমন খান, আফিফ হোসেন, তৌহিদ হৃদয়, ইরফান শুক্কুর, পারভেজ হোসেন ইমন, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ