13 April, 2021
শিরোনাম

নাভালনি ইস্যুতে রাশিয়াকে নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে ইইউ

 19 Feb, 2021   83 বার দেখা হয়েছে

 নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রিন্ট

রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনি ইস্যুতে আগামী মাসে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। মার্চ মাসে ইইউর সামিটে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মিত্রদের ওপর সম্পদ জব্দসহ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, পুতিনের প্রধান অভ্যন্তরীণ সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনিকে কারাদণ্ডের জবাবে গত ডিসেম্বরে চালু হওয়া ইইউর নতুন কাঠামো অনুযায়ী শাস্তিমূলক এই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নতুন ফ্রেমওয়ার্কে বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার লঙ্ঘনকারীদের ওপর ব্যবস্থা গ্রহণের নিয়ম রয়েছে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক নাভালনির ওপর গত বছরের ২০ আগস্ট বিষ প্রয়োগ করা হয়। মস্কো শহরের একটি হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখান থেকে তাকে জার্মানিতে নেয় হয়। জার্মান সরকার জানায়, নোভিচক গ্রুপের নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল নাভালনির ওপর। এরপর গত ১৭ জানুয়ারি জার্মানিতে চিকিৎসা শেষ দেশে ফিরলে নাভালনিকে আটক করা হয়। পরে গত ৩ ফেব্রুয়ারি স্থগিত দণ্ডের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় তাকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ ইস্যুতে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নের একজন সিনিয়র কূটনৈতিক জানান, আগামী মার্চের ইইউ সামিটের আগেই রাশিয়ার ওপর অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবেইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ২৭ দেশের নেতারা বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে আগামী ২৫-২৬ মার্চ মিলিত হবেন। তার আগে ২২ মার্চ ইইউ’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মিলিত হবেন।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূতদের বৈঠকে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপে জার্মানি, ফ্রান্স, পোলান্ড এবং বাল্টিক রাষ্ট্রগুলোর ব্যাপক সমর্থন লক্ষ্য করা গেছে। তারা সবাই পুতিন মিত্রদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এবং সম্পদ জব্দের আহ্বান জানিয়েছে।

ইইউ দূতদের বৈঠকে নাভানলি ইস্যুতে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি উঠলেও রাশিয়া থেকে জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহে নর্ড স্ট্রিম-২ লাইন বন্ধ নিয়ে কোনো কথা ওঠেনি। তবে ভ্লাদিমির পুতিন মিত্রদের মধ্যে শক্তিশালী বিজনেস এলিটদের টার্গেট করা হবে কি না সেটা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট হয়নি।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের তিন রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করলে দেশটির প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপে ইইউ’র ওপর চাপ বাড়ে। ইইউর বৈদেশিক পলিসির প্রধান ওই সময় রাশিয়ায় অবস্থান করা সত্ত্বেও তাকে না বলে জার্মান, পোলান্ড এবং সুইডেনের রাষ্ট্রদূতের বহিষ্কার করে মস্কো।সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্জেই লাভরভ ইউরোপীয় ইউনিয়নকে ‘অনির্ভরযোগ্য অংশীদার’ বলে অভিহিত করে। ইইউর আইন প্রণেতারা রাশিয়ার এমন মন্তব্যকে ব্রাসেলসের প্রতি অবমাননাকর হিসেবে দেখছেন।

সম্পর্কিত খবর
সব খবর
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | বাংলা৫২নিউজ.কম
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি এবং অপরাধ