স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বস্ত্র প্রকৌশলীদের সহায়তা দিতে আমাদের যা যা করণীয় তাই করবো। আমরাও চাই না বিদেশিরা দেশের ডলার নিয়ে যাক।

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর টেক্সটাইল প্রকৌশল বিভাগের উদ্যোগে ‘বস্ত্র এবং তৈরি পোশাক শিল্পে বিদেশি কর্মীদের আধিপত্য-আগামীর বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ কাঠামো’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের দক্ষ জনশক্তি কাজে লাগাতে পারলেই ৬ বিলিয়ন ডলার দেশের বাইরে যাবে না। সেই জন্য আপনাদের আরও বেশি সচেষ্ট হতে হবে। আমরাও চাই না বিদেশিরা দেশের ডলার নিয়ে যাক। বস্ত্র প্রকৌশলীদের সহায়তা দিতে আমাদের যা যা করণীয় তাই করা হবে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বস্ত্র পোশাক শিল্পের পরিবেশ আরও সুন্দর করতে হবে। আপনাদের যেখানে আইনগত সহায়তা প্রয়োজন সেখানে আমরা আপনাদের সাথে থাকবো। আপনারা গবেষণা করবেন। এই শিল্পের উন্নয়ন করবেন এটাই আমাদের প্রত্যাশা। কারণ আপনারাই নির্ধারণ করবেন দেশে বিদেশি কর্মীর প্রয়োজন আছে কি নেই।

সেমিনারে এসময় আরও বক্তব্য রাখেন, আইইবির প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. নুরুল হুদা, বুটেক্সের উপাচার্য অধ্যাপক ইঞ্জিনিয়ার এম এ কাসেম, আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মো. নুরুজ্জামান, আইইবির টিইডি আইইবির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম নুরুল ইসলাম, আইটিইটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. সফিকুর রহমান সিআইপি, টিইডির সাবেক চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার এস এম সিরাজুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন আইইবির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শাহাদাৎ হোসেন শীবলু, পর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাসন অ্যান্ড টেকনোলজীর উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইঞ্জিনিয়ার আইয়ুব নবী খান।

সেমিনারে আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বুটেক্সের টেক্সটাইল ম্যানেজমেন্ট এবং বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আলী।

ইঞ্জিনিয়ার মো. মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও আইইবির বস্ত্র প্রকৌশল বিভাগের সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সৈয়দ আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট খন্দকার মনজুর মোর্শেদ, সম্পাদক আবু সাঈদ হিরো, বস্ত্র প্রকৌশলের ভাইস চেয়ারম্যান আসাদ হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x