জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করেছে আলজিয়ার্সে বাংলাদেশ দূতাবাস। আলজিয়ার্সে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশি এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপস্থিতিতে এদিন সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসটির কর্মসূচি শুরু হয়।

বিকালে আলজিয়ার্সে অবস্থিত অনাথ ও প্রতিবন্ধীদের স্কুল ‘কাফিল এল এয়াতিম’-এ একটি চিত্রাংকন প্রতিযোগিতাসহ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে স্কুলের ৪০ জন ছাত্র-ছাত্রীসহ শিক্ষক ও স্কুলের পরিচালক, আলজেরিয় নাগরিক এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীসহ প্রায় শতাধিক অতিথি যোগ দেন।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে রাষ্ট্রদূত জুলকারনাইন উপস্থিত অতিথিদের জন্মবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। অত:পর অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন তেলওয়াত পাঠ করে শুনানো হয়।

আলোচনা সভায় রাষ্ট্রদূত বঙ্গবন্ধুর বেড়ে উঠা, শিশুদের জন্য তার জীবন থেকে শিক্ষা নেওয়া, বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং অগ্রগতিতে বঙ্গবন্ধুর অবদানের উপর আলোকপাত করেন। তিনি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক শিশুদের জন্য গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে উপর বর্ণনা করেন এবং ভবিষ্যতে আলজেরিয়া ও বাংলাদেশের শিশুদের একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রেরিত বাণীসমূহ পৃথক পৃথকভাবে পাঠ করে শোনান রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জুলকার নায়েন, দূতালয় প্রধান মো. আবদুল মান্নান ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা সঞ্জয় পন্ডিত।

বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের সবার রুহের মাফিরাত এবং দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন দূতাবাসের দূতালয় প্রধান আবদুল মান্নান। রাষ্ট্রদূত স্কুলের শিশু-কিশোরদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ১০২তম শুভ জন্মবার্ষিকীর কেক কাটেন। পরিশেষে, দূতাবাসের পক্ষ হতে অনাথ ও শিশুদের কল্যাণার্থে ৫০,০০০ আলজেরিয় দিনারের একটি চেক হস্তান্তর করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x