দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম যখন ওমিক্রনের হদিশ পাওয়া যায়, সেই সময় বেশিরভাগই মনে করেছিলেম হয়ত তেমন কিছু নয়। কিন্তু সেই ওমিক্রনেই বিশ্বজুড়ে উঠেছিল করোনার তৃতীয় ঢেউ। সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠে ফের যখন স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন, সেই সময়ই ইজরায়েলে মিলল আর এক ধরনের হদিশ।

ইজরায়েল সরকার ইতিমধ্যেই এই স্ট্রেন নিয়ে সতর্ক করেছে। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে সরকারিভাবে এখনও কিছু জানা যায়নি। খুব শিগগিরিই তারা এই ধরন নিয়ে বিবৃতি দিতে পারে বলে জানা গেছে।

নতুন এই স্ট্রেনটি ওমিক্রনেরই একটি মিউটেটেড প্রজাতি বলা হচ্ছে। ওমিক্রনের BA.1 এবং BA.2 প্রজাতি মিলে এই নয়া স্ট্রেনটি তৈরি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ইজরায়েল স্বাস্থ্য মন্ত্রাণালয়ের থেকে বলা হয়েছে এই স্ট্রেনটি বিশ্বের গবেষকদের কাছেও অজানা।

এই প্রজাতিটি ইজরায়েলেই তৈরি হয়েছে বলে সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রাণালয়ের থেকে বলা হয়েছে। বিমানবন্দরে দুই যাত্রীর দেহে এই ধরনটি পাওয়া যায়।

কী কী উপসর্গ থাকছে? অল্প জ্বর, গায়ে ব্যথা, মাথার যন্ত্রণা প্রাথমিক লক্ষণ। এছাড়া কোভিডের যা যা উপসর্গ রয়েছে তার সবকটি এতেও দেখা যাচ্ছে। তবে এই স্ট্রেনের জন্য শরীরে যে কষ্ট দেখা দিচ্ছে তা সাময়িক এবং নিরাময়যোগ্য। এর জন্য বড় কোনও চিকিৎসার প্রয়োজন নেই বলেই জানান হয়েছে।

তবে এর জেরে নতুন কোনও তরঙ্গ সৃষ্টি হতে নাও পারে, এমনটাই বলেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। চিন ও দক্ষিণ কোরিয়াতে ফের নতুন করে কোভিড প্রকোপ দেখা দিয়েছে। সেখানেও এই ভাইরাস থেকেই হচ্ছে কি না তা এখনও জানা যায়নি৷ সূত্র: জি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x