রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাটে চার দিন ধরে লেগে থাকা যানজট পরিস্থিতির তেমন কোনো উন্নতি হয়নি। আজও (৪ মার্চ) ঘাটে ফেরিপারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে রাজধানীমুখী যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী ট্রাকসহ শত শত বিভিন্ন গাড়ি। এর মধ্যে বিভিন্ন মালবোঝাই ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এতে ঘাটের জিরোপয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ পৌরসভার পদ্মার মোড় পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার রাস্তায় দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়।

বিআইডাব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট অফিস সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ফেরির সংকট নেই। ছোট-বড় মোট ১৯টি ফেরি রয়েছে এই নৌপথে। এর মধ্যে এগারোটি রো রো (বড়), ছয়টি ইউটিলিটি (মাঝারি), একটি কে-টাইপ (ছোট) ও একটি ডাম্প ফেরি। বহরে থাকা সবগুলো ফেরি সার্বক্ষণিক সচল রয়েছে। কিন্তু রাজধানীমুখী অতিরিক্ত গাড়ির চাপ বেড়ে গত মঙ্গলবার সকাল থেকে দৌলতদিয়া ঘাটে দীর্ঘ যানজট লেগে আছে।

এদিকে ঘাটসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথের দূরত্ব তিন কিলোমিটার। সামান্য ওই নৌপথ ফেরিপার হতে ঘাটে এসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সিরিয়ালে আটকে থাকায় বিভিন্ন গাড়ির চালকসহ যাত্রীসাধারণ অসহনীয় দুর্ভোগে পড়ছেন। পরিস্থিতি বিবেচনায় মানুষের দুর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহী বাস, মাইক্রোবাসের পাশাপাশি পঁচনশীল বিভিন্ন মালবোঝাই ট্রাক অগ্রাধিকারভাবে ফেরিপার করা হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট অফিসের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) মো. শিহাব উদ্দিন  বলেন, ‘বর্তমান দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরির কোনো সংকট নেই। কিন্ত রাজধানীমুখী অতিরিক্ত গাড়ির চাপে দৌলতদিয়া ঘাটে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। ’ বহরে থাকা ছোট-বড় ১৯টি ফেরির সবগুলো সার্বক্ষণিক সচল রেখে ঘাটে আটকে থাকা গাড়িগুলো দ্রুত পারাপারের জোর চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x