রংপুর ব্যুরোঃ রংপুর সিটি কর্পোরেশনে দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব মোঃ মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেছেন, ব্যসায়ীরা হলেন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি। রংপুরের ব্যবসায়ীরা ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রদানে অগ্রহণী ভূমিকা রাখছে। অন্যান্য জেলার তুলনায় রংপুর এদিক দিয়ে অনেক ফাষ্ট। তার পরেও ভ্যাট গ্রহনে রংপুরের ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির চেয়ারম্যান ও মহাসচিবগণ রাজস্ব বোর্ড ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলে এই বিষয়টা অবশ্যই উপস্থাপন করবেন। তারা সরকারের সাথে কথা বলে যাতে আমাদের ব্যবসায়ীরা যেন ভাল থাকে, তারা যেন কোনো প্রতিবন্দকতার শিকার হন, হয়রানীর শিকার না হয়, সেদিক ওনারা দেখবে। কারণ ওনারা দক্ষ মানুষ।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি রংপুর জেলা ও মহানগর শাখার আয়োজনে আজ সন্ধ্যায় নগরীর জেলা পরিষদ কমিউনিটি সেন্টার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠান, সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা ও শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি রংপুর মহানগর শাখার সভাপতি শাহ মোঃ আশরাফুদ্দৌলা আরজুর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির চেয়ারম্যান মোঃ হেলাল উদ্দিন বলেন, গুণী মানুষের জেলা হল রংপুর। ভাল মানুষের জেলা হল রংপুর। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তার বড় কন্যার জন্য রংপুরে তার পাত্র ঠিক করেন। আমি শ্রদ্ধা জানাই ড. ওয়াজেদ সাহেবকে। উনি এই মাটিতে শুয়ে আছেন। বঙ্গবন্ধু যখন বুঝতে পেরেছিলেন ভাল মানুষের জেলা হচ্ছে রংপুর। সেই কারণে উনার বড় মেয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বামী আজ উনি। উনার বাড়ী রংপুর। রংপুরে শুয়ে আছেন আর একজন নেতা সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। অনেক গুণী ও ভাল মানুষের জেলা হল রংপুর। বাংলাদেশের নির্বাচনে আমরা দেখলাম যে যিনি হারের, তিনিই বলেন নির্বাচন সঠিক হয়নি। একমাত্র রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে একটি মানুষও বলেনি সারা বাংলাদেশে যে নির্বাচন সঠিক হয় নাই, কারচূপি হয়েছে। এই নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হয়েছে। আমার পাসে বসে মেয়র সাহেব, ঢাকায় বসে পত্রিকায় তার ছবি দেখতাম, আর ভাবতাম লোকটা বোধহায় বেশি ভাল। আজকে তার পাশে বসে দেখলাম, উনি শুধু ভালই নয়, ভালোর চাইতে অনেক বেশি ভাল। একারণে বলছি তিনি দীর্ঘক্ষণ ধরে বসে আছেন। একজন জনপ্রতিনিধিরা যখন একটা অনুষ্ঠানে যায়, তখন তারা দ্রুত অনুষ্ঠান শেষ করার তাগিদ দিয়ে থাকেন। উনি বসে আছেন দেখছি একটার পর একটা পান আসছেন ওনার কাছে, পান চিবুচ্ছেন আর বক্তাদের বক্তব্য শ্রবণ করছেন। এমন একজন ভাল মানুষ পাওয়াটাও ভাঙ্গের ব্যাপার। তিনি কৃতার্থ। আপনারা ভাঙ্গবান। নগর পিতা হিসেবে এমন একজন মানুষকে আপনারা পেয়েছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির মহাসচিব জহিরুল হক ভূঁইয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল ইসলাম মন্টু, সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার মনি, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন ও যুগ্ম সাংগঠনিক সচিব মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরী।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি রংপুর মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মালিক সমিতি রংপুর মহানগর শাখার সহ- সভাপতি মোঃ মফিজার রহমান চান, রংপুর চেম্বার কমার্সের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মোস্তফা হোসেন রিপন, বাংলাদেশ মালিক সমিতি রংপুরের প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন আলম, জুয়েল, মুরাদ হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে রংপুর সিটি কর্পোরেশনে দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব মোঃ মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, ২৩ নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর মোঃ লিটন পারভেজ, ২৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুন অর রশিদ হারুন, ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ রফিকুল আলম, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিনুর রহমান, ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু হাসান চঞ্চল, রংপুর জেলা পরিষদের সাধারণ সদস্য পারভীন আক্তার, লটারি ক্লাব অব রংপুর এর প্রেসিডেন্ট এমদাদুল হক, পীরগঞ্জ পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কমিশনার সাইফুল আজাদ, ২০২১-২২ অর্থ বছরের শ্রেষ্ঠ করদাতা হাজী মোঃ তানভীর হোসেন আশরাফী, তৌহিদ হোসেন ও শ্রী অমিত বনিককে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

তবে রংপুর জেলা পরিষদের চেয়্যারম্যান ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রংপুর জেলা সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অজ্ঞাত কারণে তিনি উপস্থিত থাকেননি।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয় এবং নগরীর দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x