ব্যাট ও বল হাতে বছর জুড়ে দারুণ পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি পেলেন জাতীয় দলের এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। ক্রীড়া সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসপিএ) দেওয়া বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সঙ্গে বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের পুরস্কার জিতলেন তিনি।

রাজধানীর একটি হোটেলে শুক্রবার (৩ জুন) জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ২০২১ সালের সেরাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয় সংগঠনটি। বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হওয়ার দৌড়ে মিরাজের সঙ্গে সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন ফুটবলার তপু বর্মন ও আর্চার দিয়া সিদ্দিকী।

গত বছর টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান মিরাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রামে খেলেছিলেন ১৬৮ বলে ১০৩ রানের ইনিংস। সারা বছর লাল বলে তিনি আলো ছড়িয়েছেন বোলিংয়েও। গত বছর মিরাজ ৭ টেস্টে ১২ ইনিংস বোলিং করে নেন ২৫ উইকেট। ইনিংসে ৫ উইকেট একবার। ১২ ইনিংসে একটি করে শতক ও অর্ধশতকসহ রান করেন ৩১৯। ১১ ওয়ানডে ম্যাচে উইকেট ১৫টি।
ওয়ানডে দলে জায়গাটা নড়বড়ে হয়ে যাচ্ছিল মিরাজের। ২০২১ সালেই নিজেকে ফিরে পান তিনি নতুন করে। এই সময়ে দেশের মাটিতে যে দুইটি ওয়ানডে সিরিজ বাংলাদেশ জেতে, দুইটিতেই সাফল্যের গল্প লেখা হয় মিরাজের হাত ধরে।

গত বছরের শুরুতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশড করেছিল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়ে মিরাজ ছিলেন সর্বাধিক উইকেট শিকারি। আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জেতা সিরিজে ৩ ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন মিরাজ, যা ছিল সিরিজে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

বিএসপিএ’র অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি পরিণত হয়েছিল সাবেক-বর্তমান ক্রিড়াবিদদের মিলন মেলায়। সাবেক ক্রিকেটারদের মধ্যে রকিবুল হাসান, গাজী আশরাফ হোসেন লিপু, হাবিবুল বাশারদের উপস্থিতি যেমন ছিল, তেমনি অনুষ্ঠান আলোকিত করেন সাবেক ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম, আরমান মিয়া, সাবেক হকি তারকা মামুন উর রশিদের মতো তারকারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x