ইউক্রেনের মারিয়োপল শহরে যুদ্ধবিরতি মানা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন শহরটির ডেপুটি মেয়র সেরহাই ওরলভ। শনিবার তিনি বলেন, ‘আমরা এখন শহরের ভেতরেও গোলাবর্ষণের শব্দ শুনতে পাচ্ছি।’

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

সেরহাই ওরলভ বলেন, ‘রুশরা ক্রমাগত আমাদের ওপর বোমা ফেলছে এবং ভারি অস্ত্র ব্যবহার করে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘মারিয়োপলে কোনো যুদ্ধবিরতি হয়নি এবং কোনো রুটেই যুদ্ধবিরতি দেখা যাচ্ছে না। আমাদের বেসামরিক নাগরিকরা নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন। কিন্তু গোলাবর্ষণের কারণে তারা তা পারছেন না।’

একই তথ্য জানিয়েছে মারিয়োপলের সিটি কাউন্সিলও। তারা জানায়, জাপরিঝিয়া অঞ্চলে লড়াই চলছে, যেখানে মানবিক করিডোর শেষ হয়েছে।

এর আগে শনিবার সকালে ইউক্রেনের দুটি শহরে যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেয় রাশিয়া। ইউক্রেনের মারিয়োপল ও ভলনোভাখা শহরে এ যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দেয়া হয়।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, এ দুই শহরে যুদ্ধের কারণে আটকা লোকজন যাতে বের হয়ে যেতে পারেন, সেজন্য এ যুদ্ধবিরতির ঘোষণা করা হয়েছে।

দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বেসামরিক লোকজনের জন্য মানবিক করিডোর উন্মুক্ত করতে মস্কোর স্থানীয় সময় শনিবার সকাল ১০টা থেকে ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের মারিয়োপল ও ভলনোভাখা শহরে সাময়িক যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করা হয়।

মারিয়োপল রুশ সীমান্তের কাছে ইউক্রেনের একটি গুরুত্বপূর্ণ বন্দরনগরী। শহরটির চারপাশ ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী।

অপরদিকে ভলনোভাখা শহরে ব্যাপক সংঘর্ষের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এ দুই শহর এখনও ইউক্রেনের হাতছাড়া হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x