রাশিয়ার বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় শুনানি ৭ মার্চ ।

স্টাফ রিপোর্টার :

ইউক্রেনে চলমান রুশ অভিযান বন্ধে জরুরি ভিত্তিতে আদেশ দেওয়া এবং গণহত্যার কারণে রাশিয়ার বিরুদ্ধে বিচারকাজ শুরু করতে আন্তর্জাতিক আদালতে আবেদন করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এই আবেদনের শুনানির জন্য ধার্য করা হয়েছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এক প্রতিবেদনে জানায়, ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস বলেছে যে ইউক্রেনে যুদ্ধের বিষয়ে ৭ এবং ৮ মার্চ শুনানি হবে। এক বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক বিচার আদালত জানান, ৭ এবং ৮ মার্চ গণহত্যা প্রতিরোধ ও শাস্তি সংক্রান্ত কনভেনশনের অধীনে গণহত্যার অভিযোগ সংক্রান্ত মামলায় গণশুনানি হবে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে আবেদন করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি। এক টুইটবার্তায় তিনি বলেন, ইউক্রেন রাশিয়ার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে আবেদন করেছে। রাশিয়াকে অবশ্যই তার আগ্রাসন ও গণহত্যার জন্য জবাবদিহিতার আওতায় আনা হবে।

আবেদনে আমরা রুশ বাহিনীর আগ্রাসন এখনই বন্ধ করার আদেশ দেওয়া এবং আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়ার বিরুদ্ধে বিচার শুরু করার অনুরোধ জানিয়েছি। এদিকে যুদ্ধ থামানো এবং সংকট সমাধানে চেষ্টার অংশ হিসেবে বুধবার ফের বৈঠকে বসবে রাশিয়া ও ইউক্রেন। ইউক্রেন-বেলারুশ সীমান্তে অনুষ্ঠিত হবে এই বৈঠক।

এর আগে সোমবার বেলারুশের গোমেল শহরে প্রথম দফা বৈঠক হয়েছিল প্রতিবেশী দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে। কিন্তু সেখান থেকে কোনো সিদ্ধান্ত না আসায় বুধবার দ্বিতীয় দফা আলোচনা শুরু করতে রাশিয়া ও ইউক্রেন উভয় দেশের প্রতিনিধিরা সম্মত হয়েছেন বলে রুশ সংবাদমাধ্যম আরআইএ নভোস্তিকে নিশ্চিত করেছেন বেলারুশের রাজনীতিবিদ ইউরি ভসক্রিসেনস্কি, যিনি বৈঠকের আয়োজক কমিটির অন্যতম সদস্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x