Wednesday , 19 June 2024
শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের ঘর পেল সিএনজি চালক

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরে সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বদরুল আলম কালাম নামে এক হতদরিদ্র সিএনজি চালককে একটি টিনসেট ঘর উপহার দিয়ে প্রশাংসা কুড়িয়েছেন সংগঠনটি। এ পর্যন্ত রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যোগ ৫৩টি ঘর অসহায় পরিবারকে উপহার দেওয়া হয়।

শুক্রবার (১৮ মার্চ) বিকেলে পৌরসভার মিয়া রাস্তা মাথা এলাকায় সংগঠনের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা ফিতা কেটে নবনির্মিত ঘর উদ্বোধন করেন। এসময় ঘরে চাবি বুঝিয়ে দেওয়া হয় সুবিধাভোগী কালামের হাতে।

ঘর উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন- লক্ষ্মীপুর জজ কোর্টের (কৌশলী-পিপি) এডভোকেট জসিম উদ্দিন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সালাহ্ উদ্দিন টিপু, লাহারকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল গফুর, রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা মেহিদী হোসাইন মাসুম মোল্লা, সভাপতি মেহেদি হাসান মুন্না, সাধারণ সম্পাদক মো. মুরাদ হোসেন প্রমুখ।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে একটি জরাজীর্ণ ঘরে বদরুল আলম কালাম তার পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করতেন। তার সংসারে রয়েছে তিন মেয়ে ও এক ছেলে। বৃষ্টি আসলেই টিনের চালের ছিদ্র দিয়ে পানি পড়তো ঘরের ভিতর। পলিথিন আর ভাঙাবেড়ার ঘরটিতে মানুষ বসবাস করে এমনটা দূর থেকে বুঝার উপায় ছিলো না কারোই। এমন মানবেতর জীবন দৃষ্টিগোচর হয় স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের। পরে সংগঠনের পক্ষ থেকে কালামকে একটি টিনসেট ঘরে নির্মাণ করে দেওয়া হয়।

সিএনজি (অটোরিকশা) চালক বদরুল আলম কালাম বলেন, ঝড়-বৃষ্টির সময় খুব কষ্টের মধ্যে দিন-রাত কাটাতাম। এখন আর কষ্ট হবে না। স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে শান্তিতে রাতে ঘুমাতে পারবো। রহমানিয়া ফাউন্ডেশনের সবাইকে মন থেকে দোয়া করি।

জানতে চাইলে সংগঠনের সভাপতি মেহিদী হাসান মুন্না বলেন, বদরুল আলম কালামের কষ্টের কথা জানতে পেরে তার পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করা করছি। সে হিসেবে সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে একটি নতুন ঘর উপহার দেওয়া হয়। কালামের ঘরসহ এপর্যন্ত ৭৩টি ঘর আমরা অসহায় মানুষকে উপহার দিলাম।

Check Also

সেন্টমার্টিনের নিরাপত্তা নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে: আইএসপিআর

মিয়ানমার সামরিক বাহিনী দেশটির রাখাইন রাজ্যে আরাকান আর্মির বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান পরিচালনা করছে। মিয়ানমারের সামরিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x