দর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নের দমদমা বাজারের পাশে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আতাউর রহমান আতা জানান, দুপুরের দিকে হঠাৎ করে পাট মুজুত রাখা ঘরে আগুন লেগে যায় এবং মুহুর্তের মধ্যেই আগুন ৪টি ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। পরে ফায়ার সার্ভিস অফিসে ফোন দিলে আধঘন্টার মধ্যেই ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততোক্ষণে কাঠমিস্ত্রী শামসুলের ৪টি ঘর আগুনে পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, কাঠমিস্ত্রী শামসুল হক প্রায় ২০ বছর আগে খুব কষ্ট করে এই জমি টুক কিনে সেখানে বাড়ি করে আছেন কাঠমিস্ত্রীর পাশাপাশি তিনি পাট ও তামাকের স্টক ব্যাবসা করে আসছেন। একটি ঘরে প্রায় ৭/৮ লক্ষ টাকার পাট ও তামাক মুজুত ছিল সেগুলোও পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

তিনি যেহেতু ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য তাই ব্যাক্তিগত ভাবে তিনি সামান্য কিছু চাল, ডাল, তেলের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি ওই পরিবারকে সহযোগীতা করার জন্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা প্রশাসক মহোদয়কে অবগত করেছেন।

অগ্নিকান্ডে ক্ষতির শিকার কাঠমিস্ত্রী শামসুল হক বলেন, তার ৫ সন্তান। দুই ছেলে ও তিন মেয়ে। দুই ছেলের এক ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী। জীবনে অনেক কষ্ট করে আজ আমি যখন স্বাবলম্বীর পথে ঠিক সেই সময় আধঘন্টার আগুনে পুড়ে সব শেষ হয়ে গেল।

লালমনিরহাট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সুজন বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি তিনি জানার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাচ্ছেন। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে স্থায়ীভাবে খুব দ্রুত কিছু ক্ষতিপূরন দেয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x