২০২২ সালের তুলনায় চলতি বছর হজের ৩০ শতাংশ খরচ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি আরবের হজ ও উমরাহ মন্ত্রণালয়। এটি শুধু দেশটির হজযাত্রীদের জন্য, কিন্তু বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয় বলে জানিয়েছে হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)। মঙ্গলবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে সংগঠনটি।

হাব জানায়, সৌদি সরকার ২০২৩ সালের হজযাত্রীদের হজব্রত পালনের খরচ ৩০ শতাংশ কমিয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশ করা হচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে ৩০ শতাংশ খরচ কমানোর বিষয়টি শুধু সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ হজযাত্রীদের জন্য প্রযোজ্য। বাংলাদেশ কিংবা অন্যান্য দেশের হজযাত্রীদের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য নয়।

হজের মতো স্পর্শকাতর বিষয়ে যেন কোনো ধরনের বিভ্রান্তি তৈরি না হয়, সেজন্য বিষয়টি স্পষ্ট করা হলো বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে এ বছরের হজ প্যাকেজ ঘোষণা করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন ধর্মবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান। রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীতে নিজ বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

ফরিদুল হক খান বলেন, সামনে আমাদের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের সঙ্গে মিটিং আছে। সৌদি আরবে যেসব কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি হয়েছে তাদের সঙ্গে রেট নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। যদি রেট ৫ শতাংশও কমে, তাহলে সেটা বাংলাদেশের জন্য উপকার। রেটগুলো ২০ থেকে ২২ জানুয়ারির মধ্যে পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

তিনি বলেন, ২২ জানুয়ারি বিমানের সঙ্গে মিটিং হয়ে গেলে আগামী ২৫ থেকে ৩০ জানুয়ারির মধ্যে হজ প্যাকেজ ঘোষণা করতে পারব, ইনশাআল্লাহ। তবে রিয়ালের মূল্য বাড়ায় হজ প্যাকেজের খরচ গত বছরের তুলনায় কিছুটা বাড়তে পারে বলেও জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x